kalerkantho

শুক্রবার । ৯ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


গাজীপুরে ৭ জঙ্গি নিহতের ঘটনায় মামলা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৯ অক্টোবর, ২০১৬ ১৬:০৩



গাজীপুরে ৭ জঙ্গি নিহতের ঘটনায় মামলা

গাজীপুরের নোয়াগাঁও পাতারটেক এলাকায় শনিবাবের অভিযানে ৭ জেএমবি সদস্য নিহতের ঘটনায় জয়দেবপুর থানায় একটি মামলা হয়েছে। জয়দেবপুর থানার ওসি খন্দকার রেজাউল হাসান বাদী হয়ে আজ রবিবার সকালে অস্ত্র আইনে মামলাটি দায়ের করেন।

গাজীপুরের পুলিশ সুপার হারুন অর রশিদ জানান, দুর্গাপূজায় নাশকতামূলক ঘটনা ঘটানোর প্রস্তুতিকালে পুলিশ, সোয়াত, কাউন্টার টেররিজম ইউনিট যৌথভাবে নোয়াগাঁও পাতারটেকের একটি বাড়িতে অভিযান চালালে ৭ জঙ্গি নিহত হয়। পুলিশ সুপার আরও জানান, ঘটনাস্থলে মামলার আলামত হিসাবে ২২ বোরের রাইফেলের গুলি প্রায় ১০০ এর মতো, ১০৫ রাউন্ড পিস্তলের গুলি, ১টি পাকিস্তানি রিভলবার উদ্ধার হয়েছে। জঙ্গিরা তাদের ব্যবহৃত ৩টি মোবাইল ফোন এবং কাগজপত্রগুলো পুড়িয়ে ফেলেছে।

তবে ঘটনার ১২ ঘণ্টা পরও নিহতদের স্বজনরা কেউ লাশের সন্ধান করতে আসেননি বলে জানান তিনি। লাশগুলো শহীদ তাজউদ্দিন আহমদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে। লাশগুলোর ময়নাতদন্ত কাজ চলছে বলেও জানান তিনি। ময়নাতদন্ত শেষে মরদেহগুলো ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের হিমঘরে পাঠানো হবে বলেও জানা গেছে। সেখানে মরদেহের পরিচয়ের ব্যাপারে নিশ্চিত হতে ডিএনএ পরীক্ষা করা হবে।

জয়দেবপুর থানার ওসি খন্দকার রেজাউল হাসান রেজা বলেন, পাতারটেকে পুলিশের অভিযানে সাত জঙ্গি নিহত হয়। তাদের মধ্যে আকাশের পরিচয় পাওয়া গেলেও অপর ছয়জনের পরিচয় নিশ্চিত হওয়া যায়নি। আকাশ নব্য জেএমবির ঢাকা বিভাগের অপারেশন কামান্ডার ছিলেন। তার পুরো নাম ফরিদুল ইসলাম ওরফে আকাশ ওরফে প্রভাত। বাকিদের পরিচয় উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।

অপরদিকে শনিবারে হাড়িনাল লেবু বাগানে ব্যাবসায়ী আতাউর রহমানের বাড়িতে অভিযানে আরও দুই জঙ্গি নিহত হয়। র‌্যাবের মিডিয়া বিভাগের পরিচালক মুফতি মাহমুদ সংবাদিকদের জানিয়েছেন, দুই জঙ্গির একজনের নাম রাশেদুল ইসলাম এবং অপর জনের নাম তৌহিদুল ইসলাম।

 


মন্তব্য