kalerkantho

শনিবার । ৩ ডিসেম্বর ২০১৬। ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ২ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


চট্টগ্রামে জীবিত নবজাতককে মৃত বলে ডেথ সার্টিফিকেট!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৪ অক্টোবর, ২০১৬ ২৩:৩৮



চট্টগ্রামে জীবিত নবজাতককে মৃত বলে ডেথ সার্টিফিকেট!

জীবিত নবজাতককে মৃত ঘোষণা করে ডেথ সার্টিফিকেট দিয়ে প্যাকেটে ভরার অভিযোগ উঠেছে চট্টগ্রামের একটি বেসরকারি হাসপাতালের বিরুদ্ধে। গতকাল সোমবার রাতে মহানগরীর প্রর্বত্তক মোড়ে অবস্থিত বেসরকারি হাসপাতাল সিএসসিআরে এ ঘটনা ঘটেছে।

এ ঘটনাটি তদন্তের জন্য হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে।

হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, সোমবার রাত ১টায় সিএসসিআর হাসপাতালে ডা. রিদওয়ানা কাউসার তুষার বাচ্চা প্রসব করেন। জন্মের ২ ঘণ্টার মধ্যে বাচ্চাটিকে মৃত ঘোষণা করে ডেথ সার্টিফিকেট দিয়ে একটি প্যাকেটে করে ওই নবজাতককে মা ডা. রিদওয়ানা কাউসার তুষারের কাছে দেয় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

এ ব্যাপারে ডা. রিদওয়ানা কাউসার বলেন, ‘বাচ্চা ডেলিভারি হওয়ার পর গাইনি বিশেষজ্ঞ ডা. শাহেনা আক্তারকে বলতে শুনলাম বাচ্চা শ্বাস নিচ্ছে। তাকে দ্রুত এনআইসিইউতে (নিউনাটাল ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিট) নিয়ে যাওয়া হোক। ডাক্তারের নির্দেশে এনআইসিইউতে নেওয়ার ২ ঘণ্টা পর মৃত্যু সনদ দিয়ে একটি প্যাকেটে ভরে বাচ্চাকে ক্যাবিনে দিয়ে যায় কর্তৃপক্ষ। যেহেতু আমি নিজেও ডাক্তার, তাই গাইনি বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের কথাটি আমার মনে পড়লে ট্যাপ দিয়ে মোড়ানো প্যাকেটটি খুলে দেখতে চাইলাম। কিন্তু হাসপাতালের দায়িত্বরত লোকজন আমাকে বাধা দিলেন। তারপরও আমি জোর করে প্যাকেট খুলে দেখি বাচ্চা নড়াচড়া করছে। ’

তিনি আরো বলেন, আমি আবারও এনআইসিইউতে নিয়ে যাওয়ার ব্যবস্থা করার জন্য বললে সেখানে দায়িত্বরত ব্যক্তি বললেন, বাচ্চা মৃত। আমি বললাম, বাচ্চা নড়াচড়া করছে। তিনি আবারো বললেন, বাচ্চা না, শরীরের মাংস নড়ছে। আমি বললাম, পরীক্ষা করে দেখুন। কিন্তু তিনি পরীক্ষা করতে অস্বীকৃতি জানান।

এদিকে এ বিষয়টি ভুল বোঝাবুঝি উল্লেখ করে সিএসসিআর-এর মেডিক্যাল অফিসার তানভির জাফর বলেন, আমরা আগেই বলেছিলাম হাসপাতালে ওয়ার্মার খালি নেই; তাই পাশের হাসপাতালে নিয়ে যেতে। তারপরও যেহেতু একটি অভিযোগ উঠেছে সেজন্য কর্তৃপক্ষ একটি তদন্ত টিম গঠন করেছে। তদন্তের পর কেউ দোষী প্রমাণিত হলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে কর্তৃপক্ষ।


মন্তব্য