kalerkantho

শুক্রবার । ৯ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


রাজৈরে তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগ

মাদারীপুর প্রতিনিধি    

১ অক্টোবর, ২০১৬ ২২:০০



রাজৈরে তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগ

মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলার মোল্যাকান্দি গ্রামে এক তরুণীকে (২০) ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। পরে স্থানীয়ভাবে সালিসে বিয়ের কথা বললেও ধর্ষক পালিয়ে গেছে বলে  অভিযোগ করেছেন ঘটনার শিকার ওই তরুণী।

স্থানীয় ও ধর্ষণের শিকার তরুণীর অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, ওই তরুণীর প্রতিবেশী  মোল্লাকান্দি গ্রামের মো. আ. হাই মিয়ার ছেলে মোতাচ্ছের মিয়া (২৬) দীর্ঘদিন ধরে তাকে উত্ত্যক্ত করে আসছিল। এর অংশ হিসেবে গত ২৭ সেপ্টেম্বর রাতে ওই তরুণীর ঘরের বেড়া কেটে ভেতরে প্রবেশ করে ধর্ষণ করে তাকে। এ সময় তার চিৎকার শুনে স্থানীয়রা ছুটে এসে ধর্ষক মোতাচ্ছেরকে আটক করে।

পরের দিন ওই ধর্ষকের চাচাতো ভাই মোল্লাকান্দির ৭ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুল্লাহ আল মামুন রাজিবের নেতৃত্বে ওই তরুণীর বাড়িতে সালিসি বৈঠক বসে। বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় রুহুল আমিন মিয়া, জাহাঙ্গীর, সোরহাব খান, মুসা সুলতান, হাবিব খান, কুদ্দুস খান, রায়হান খানসহ অনেকেই। সালিসে সিদ্ধান্ত হয় ৩০ সেপ্টেম্বর দুই পরিবার মিলে বিয়ের ব্যবস্থা করা হবে। শুক্রবার বিয়ের কথা থাকলেও সালিসের পর থেকে ধর্ষক মোতাচ্ছের পলাতক রয়েছে।

ওই তরুণী বলেন, "সমাজের চোখে আমি ছোট হয়েছি। এখন আমার কী হবে। সালিসে  বিয়ের সিদ্ধান্ত হয়। আমি ও আমার পরিবার তাতে রাজি হই। কিন্তু ধর্ষক ও তার পরিবার বাঁচার জন্য সালিসে বিয়ের ব্যাপারে রাজি হয়। তারা ছেলেকে ছাড়িয়ে নিয়ে যায়। পরে তারা বিয়ের আগেই ছেলেকে অন্যত্র সরিয়ে ফেলে। তাই এ ব্যাপারে আমি রাজৈর থানায় লিখিতভাবে একটি অভিযোগ দিয়েছি। "

এ ব্যাপারে মাদারীপুর মহিলাবিষয়ক কর্মকর্তা মাহমুদা আক্তার কণা বলেন, "মেয়েটি আমার কাছে আসলে কিংবা লিখিত অভিযোগ দিলে আমি প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার ব্যাপারে সহযোগিতা করব। " রাজৈর থানার ওসি কামরুল হাসান বলেন, "বিষয়টি তদন্তাধীন। "
রাজৈরের মোল্লাকান্দির ৭ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আব্দুল্লাহ আল মামুন রাজিবের মোবাইলে ফোন দেওয়া হলেও তিনি তা রিভিস করেননি।


মন্তব্য