kalerkantho

সোমবার । ৫ ডিসেম্বর ২০১৬। ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


আশুলিয়ায় ৬১১টি পাখিসহ আটক ১

নিজস্ব প্রতিবেদক, সাভার (ঢাকা)    

২৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৮:০৯



আশুলিয়ায় ৬১১টি পাখিসহ আটক ১

রাজধানী ঢাকার উপকণ্ঠ আশুলিয়া থেকে ৬১১টি পাখিসহ এক ব্যক্তিকে আটক করেছে ঢাকা বন বিভাগ কর্তৃপক্ষ। আজ বৃহস্পতিবার ভোররাতে আশুলিয়ার জিরাবো এলাকা থেকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ‌এসব পাখিসহ লাল মিয়া (৩৮) নামের ওই ব্যক্তিকে আটক করা হয় বলে জানান ঢাকা বন বিভাগের বন সংরক্ষণ কর্মকর্তা অসিত রঞ্জন।

জব্দকৃত পাখিগুলোর মধ্যে রয়েছে তোতা, মুনিয়া, ময়না এবং টিয়াসহ বিভিন্ন প্রজাতির পাখি। আটক ব্যক্তির নাম লাল মিয়া শেরপুর জেলার গোবিন্দগঞ্জ এলাকার আফাজ উদ্দিনের ছেলে। তার বিরুদ্ধে বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ আইনে একটি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

ঢাকা বন বিভাগের বন সংরক্ষণ কর্মকর্তা অসিত রঞ্জন জানান, উত্তরবঙ্গ থেকে একটি চক্র বাসে করে বিপুল পরিমাণ বন্য পাখি নিয়ে ঢাকায় আসছে— এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আশুলিয়ার জিরবো এলাকায় অভিযান চালানো হয়। জিরাবো এলাকায় বন বিভাগের কর্মকর্তা পৌঁছানোর আগেই পাখিপাচার চক্রটি বাস থেকে পাখিগুলো নামিয়ে স্থানীয় একটি টং দোকানে পাখিগুলো লুকিয়ে রাখার চেষ্টা চালায়। এ সময় বন বিভাগের কর্মকর্তারা ওই দোকান থেকে ৩০০টি মুনিয়া, ৮০টি টিয়া, ২৩০টি তোতা এবং একটি ময়নাসহ ৬১১টি পাখি জব্দ করে। একই সঙ্গে পাখি সংগ্রহ ও বিক্রি করার দায়ে লাল মিয়া নামের এক ব্যক্তিকে আটক করা হয়। পরে দুটি পাখি মারা যায়।

বন বিভাগের এ কর্মকর্তা আরো জানান, আটক লাল মিয়ার বিরুদ্ধে বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ আইনে একটি মামলা দায়ের করা হবে। আটক ব্যক্তি পাখি পাচারকারী চক্রের দালাল বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে বলেও জানান তিনি। বন্যপ্রাণী পরিদর্শক অসীম মল্লিক জানান, পাখিগুলো রাজধানীর আগারগাঁওয়ে বন বিভাগের প্রধান কার্যালয়ে আনা হয়েছে। কোনো উদ্যান বা বনাঞ্চলে পাখিগুলো অবমুক্ত করা হবে।

 


মন্তব্য