kalerkantho

বুধবার । ৭ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৬ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


চালককে মারধরের প্রতিবাদ

ঝালকাঠির ছয় রুটে অনির্দিষ্টকালের বাস ধর্মঘটের দ্বিতীয় দিন

ঝালকাঠি প্রতিনিধি    

২৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৬:২৩



ঝালকাঠির ছয় রুটে অনির্দিষ্টকালের বাস ধর্মঘটের দ্বিতীয় দিন

চালককে মারধর করার প্রতিবাদের ঝালকাঠি থেকে ছয়টি রুটে আজ বুধবার দ্বিতীয় দিনের মতো বাস ধর্মঘট চলছে। গতকাল মঙ্গলবার সকাল থেকে আন্তঃজেলা সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়ন এ ধর্মঘটের ডাক দেয়।

এতে বরিশাল, খুলনা, পিরোজপুরসহ অভ্যন্তরীণ ছয়টি রুটে দুই দিন ধরে বাস চলাচল বন্ধ রয়েছে। এতে চরম ভোগান্তিতে  পড়েছে এসব রুটে চলাচলকারী যাত্রীরা।

সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক বাহাদুর চৌধুরী জানান, বাস ধর্মঘটের ব্যাপারে ঝালকাঠি জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে বাস ও মিনিবাস মালিক সমিতি এবং শ্রমিক ইউনিয়নের নেতৃবৃন্দের সঙ্গে বৈঠক করেন জেলা প্রশাসক মো. মিজানুল হক চৌধুরী। বৈঠকে জেলা প্রশাসক বাস চলাচল শুরু করার জন্য অনুরোধ করলেও শ্রমিক ইউনিয়নের নেতৃবৃন্দ ঘটনার বিচার না হওয়া পর্যন্ত ধর্মঘট চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেন। এনিয়ে আজ বিকেলে দ্বিতীয় দফায় বৈঠকে বসার কথা রয়েছে বলেও সংগঠনের নেতৃবৃন্দ জানান।

গত ২৪ সেপ্টেম্বর অটোরিকশার সঙ্গে বাসের (ফেনি-ঝ-০৪-০০১১) ধাক্কা লাগার ঘটনাকে কেন্দ্র করে পিরোজপুর সদর উপজেলা চেয়ারম্যান মজিবুর রহমান খালেক স্থানীয় জজ কোর্ট এলাকায় বসে ঝালকাঠির বাসচালক নান্না সিকদারকে মারধর করেন। আহত বাসচালককে ঝালকাঠি সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ঝালকাঠি আন্তঃজেলা সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়ন বিষয়টি নিয়ে সংগঠনের কার্যালয়ে বৈঠক শেষে বাসচালক নান্না সিকদারকে মারধরের ঘটনার বিচার ও জানমালের নিরাপত্তার দাবিতে অনির্দিষ্টকালের জন্য ধর্মঘটের ঘোষণা করা হয়। ঘটনার বিচার না হওয়া পর্যন্ত এ ধর্মঘট চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেন শ্রমিক নেতৃবৃন্দ।

এদিকে, চিকিৎসাধীন বাসচালক নান্না সিকদার বলেন, "আমাকে মারধর করার পরও তারা কোনো খোঁজখবর নেয়নি। বাস ধর্মঘটে দক্ষিণাঞ্চল প্রায় অচল হয়ে যাওয়ার পরও পিরোজপুর সদর উপজেলা চেয়ারম্যান মজিবুর রহমান খালেক প্রতিকারের বিষয়ে আমাদের সংগঠনের সঙ্গে কোনো আলোচনা করেননি। "  

 


মন্তব্য