kalerkantho

বুধবার । ৭ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৬ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


আগৈলঝাড়ায় বৃদ্ধকে গাছের সাথে বেঁধে অমানুষিক নির্যাতন

গৌরনদী (বরিশাল) প্রতিনিধি    

২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৭:২৪



আগৈলঝাড়ায় বৃদ্ধকে গাছের সাথে বেঁধে অমানুষিক নির্যাতন

মেয়ে জামাতার কাছ থেকে পাওনা টাকার জন্য বৃদ্ধ শ্বশুরকে গাছের সাথে বেঁধে অমানুষিক নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। মুমুর্ষূ অবস্থায় তাকে গতকাল শুক্রবার রাতে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এ ঘটনাটি বরিশাল জেলার আগৈলঝাড়া উপজেলার জবসেন গ্রামের।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ওই গ্রামের হাবিব সিকদারের (৬৭) মেয়ে জামাতা বরগুনা জেলার আমতলী এলাকার হারুন-অর-রশিদ জবসেন এলাকার ৭/৮ জন যুবককে বিদেশে পাঠানোর জন্য প্রায় দশ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়ে আত্মগোপন করে। এ ঘটনা নিয়ে গত বৃহস্পতিবার রাতে জবসেন ক্লাবে এক শালিস বৈঠক বসে। বৈঠকে পাওনাদারসহ স্থানীয় কয়েকজন ব্যক্তি হাবিব সিকদারের কাছ থেকে জোরপূর্বক সাদা ষ্ট্যাম্পে স্বাক্ষর আদায়ের চেষ্টা করেন। তিনি (হাবিব) স্বাক্ষর না দিয়ে তার মেয়ে জামাতাকে তিন দিনের মধ্যে হাজির করার মুচলেকা দেন।

হাসপাতালে শয্যাশয়ী হাবিব সিকদার অভিযোগ করেন, শুক্রবার সন্ধ্যায় তিনি স্থানীয় মসজিদ থেকে নামাজ আদায় করে বাড়ি ফেরার সময় একই এলাকার হালিম পাইক, পলাশ পাইক, লোকমান সিকদার ও মাসুম সিকদার জোরপূর্বক তাকে একটি আম গাছের সাথে রশি দিয়ে বেঁধে অমানুষিক নির্যাতন করে। পরে তাকে (হাবিব) স্থানীয় সাবেক ইউপি সদস্য সরোয়ার সিকদারের বাড়ি নিয়ে যাওয়ার পরেও পাওনাদার মনু সিকদার লাঠি দিয়ে তাকে এলোপাথারি পিটিয়ে গুরুতর আহত করে ফেলে রাখে।  

তিনি আরও জানান, হামলাকারীদের বাঁধা দিতে গিয়ে ইউপি সদস্য সরোয়ার সিকদারের স্ত্রী মুকুল বেগম ও তার ছোট ভাই ফজলু সিকদারও আহত হন। ওইদিন রাতেই স্থানীয়রা গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে (হাবিব) উদ্ধার করে আগৈলঝাড়া উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি করেন।


মন্তব্য