kalerkantho

বুধবার । ৭ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৬ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


চুয়াডাঙ্গায় ডাকাতের ছুরিকাঘাতে নিহত ১, আহত ৮

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১০:৩৫



চুয়াডাঙ্গায় ডাকাতের ছুরিকাঘাতে নিহত ১, আহত ৮

চুয়াডাঙ্গায় ডাকাতের হামলায় ভুলু হোসেন নামে এক গরু ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও ৮ জন।


বৃহস্পতিবার রাত ৯টার দিকে আলমডাঙ্গা উপজেলার মুন্সিগঞ্জ-আঠারোখাদা সড়কের মধুখালী নামক স্থানে এ ঘটনা ঘটে। নিহত ভুলু হোসেন (৩৪) আলমডাঙ্গা উপজেলার নতীডাঙ্গা গ্রামের রবিউল হোসেনের ছেলে।
এছাড়া আহতরা সবাই একই গ্রামের। তাদের মুমূর্ষু অবস্থায় চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
ডাকাতদের হামলার শিকার তৌহীদ হোসেন জানান, আলমডাঙ্গা উপজেলার নতীডাঙ্গা গ্রামের ১৯-২০ জন গরু ব্যবসায়ী জীবননগর উপজেলার শিয়ালমারী পশুহাটে গরু বিক্রি করে বাড়ি ফিরছিলেন। তারা রাত ৯টার সময় মুন্সিগঞ্জ-আঠারোখাদা সড়কের মধুখালী নামক স্থানে পৌঁছালে ২৪-২৫ জনের ডাকাত দল রাস্তার উপর পাটখড়ি দিয়ে ব্যারিকেড সৃষ্টি করে তাদের গতিরোধ করে। এ সময় গরু ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে টাকা লুট করার চেষ্টা করলে উভয়ের মধ্যে ধস্তাধস্তি হয়। এক পর্যায়ে ডাকাতরা গরু ব্যবসায়ীদের লক্ষ্য করে একটি শক্তিশালী বোমার বিস্ফোরণ ঘটায়।
এছাড়া ডাকাত দলের সদস্যরা ধারালো অস্ত্রদিয়ে গরু ব্যবসায়ীদেরকে এলোপাতাড়ি কোপায়।
এতে ভুলু হোসেন ঘটনাস্থলেই নিহত হন এবং একই গ্রামের মিল্কি হোসেন, শামসুল ইসলাম, হানিফ হোসেন, জিয়াউর রহমান, বাবুল আক্তার, হারেজ আলী, তরিক হোসেন ও আজিজুল হক গুরুতর আহত হন।   পরে তাদের চিৎকারে ও বোমার শব্দ পেয়ে এলাকাবাসী ছুটে এলে ডাকাতরা পালিয়ে যায়।
আহতদেরকে মুমূর্ষু অবস্থায় উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
আলমডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আকরাম হোসেন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ডাকাত দলের সদস্যদেরকে গ্রেফতারে পুলিশ অভিযানে নেমেছে।


মন্তব্য