kalerkantho

শুক্রবার । ২ ডিসেম্বর ২০১৬। ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ১ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


প্রাইভেট না পড়ায় স্কুলছাত্রকে বেধড়ক পেটালেন শিক্ষক!

মাদারীপুর প্রতিনিধি   

২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৮:৪০



প্রাইভেট না পড়ায় স্কুলছাত্রকে বেধড়ক পেটালেন শিক্ষক!

মাদারীপুরে সপ্তম শ্রেণির এক ছাত্রকে প্রাইভেট না পড়ার অজুহাতে সুকুমার হালদার নামের এক শিক্ষক পিটিয়ে গুরুতর জখম করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি করেছে স্কুল কর্তৃপক্ষ।

অভিযোগে জানা গেছে, ইউনাইটেড ইসলামিয়া সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণির ছাত্র ফাহিম আহমেদ প্রাইভেট পড়তে অনীহা প্রকাশ করায় এবং ক্লাসে অনুপস্থিত থাকার অভিযোগে পিটিয়ে গুরুত আহত করে ঐ স্কুলের শিক্ষক সুকুমার হালদার।

আহত ছাত্র ফাহিমের বাবা উপ-প্রকৌশলী আ.স.ম. হাসান কবির বলেন, আমি ঈদের ছুটিতে পরিবারসহ গ্রামের বাড়ি বেড়াতে গিয়ে অসুস্থ হয়ে পড়লে মাদারীপুর আসতে একদিন দেরি হয়। এরপর আমার ছেলে বুধবার স্কুলে গেলে স্কুলের শিক্ষক সুকুমার হালদার আমার ছেলের কাছ থেকে জরিমানা আদায় করে এবং বকাবকি করে। পরে আমার ছেলেকে প্রাইভেট পড়ার কথা বলে। এতে আমার ছেলে তার কাছে প্রাইভেট পড়তে অনীহা প্রকাশ করলে ঐ শিক্ষক আমার ছেলেকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে।

অভিযুক্ত শিক্ষক সুকুমার হালদার এ বিষয় বলেন, “প্রাইভেট তো দেশব্যাপী সবাই পড়ায়। আমি তো একা পড়াই না। ”

ছাত্রকে নির্যাতনের বিষয় জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি বেত দিয়ে সামান্য একটি বারি দিয়েছি। ”

ইউনাইটেড ইসলামিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নুরুল ইসলাম বলেন, শিক্ষার্থীদের শারিরিক ও মানসিক নির্যাতনই বেআইনি।

নির্যাতনের শিকার ছাত্র ফাহিমের বাবা বৃহস্পতিবার একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। এ বিষয়ে ঐ প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক কবিতা রাণী মালোকে প্রধান করে শিক্ষক শওকত জামিল ও হযরত আলী মোল্যাকে সদস্য করা হয়েছে। তদন্ত রিপোর্ট পাওয়ার পরে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।


মন্তব্য