kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


উত্ত্যক্ত ও শ্লীলতাহানির চেষ্টার অভিযোগ

দিনাজপুরে দুই বখাটেকে ধরিয়ে দিল কলেজছাত্রী, কারাদণ্ড

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২৩:৫১



দিনাজপুরে দুই বখাটেকে ধরিয়ে দিল কলেজছাত্রী, কারাদণ্ড

দিনাজপুরের বিরামপুর উপজেলায় উত্ত্যক্ত ও শ্লীলতাহানির চেষ্টার শিকার কলেজছাত্রী নিজেই দুই বখাটেকে ধরিয়ে দিয়েছে। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালত দুই বখাটেকে ছয় মাস করে বিনাশ্রম কারাদণ্ডাদেশ দিয়েছেন।

কারাদণ্ডাদেশপ্রাপ্তরা হলেন-বিরামপুর পৌর শহরের দেবীপুর গ্রামের মো. সেলিম (২৮) এবং রংপুরের বদরগঞ্জ উপজেলার রাজবাড়ী গ্রামের শাহিন বাবু (২০)। আজ বুধবার দুপুরে তাদেরকে এ সাজা দেওয়া হয় বলে জানান ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী হাকিম ও বিরামপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) এস এম মনিরুজ্জামান আল মাসউদ।

এ প্রসঙ্গে বিরামপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মোখলেছুর রহমান জানান, বিরামপুর মহিলা কলেজের ছাত্রীরা কলেজে আসার সময় শহরের শহীদ মিনার মাঠ থেকে কলেজ রোড পর্যন্ত বখাটে সেলিম তাদের প্রায়ই সময় উত্ত্যক্ত করত এবং মোটরসাইকেলে চড়ে ছাত্রীদের গায়ে হাত দিয়ে পালিয়ে যেত। আজ সকালেও এক কলেজছাত্রীকে পিছন দিক থেকে গায়ে হাত দিয়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে মোটরসাইকেল আরোহী সেলিম। এ সময় কলেজছাত্রী চিৎকার করলে এলাকার লোকজন সেলিমকে আটক করে কলেজে নিয়ে আসে। পরে কলেজ কর্তৃপক্ষ পুলিশকে খবর দেয়। পরে সেলিমকে ভ্রাম্যমাণ আদালতে হাজির করা হয়।

ওই কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির মানবিক বিভাগের কয়েকজন ছাত্রী নাম প্রকাশ না করার শর্তে অভিযোগ করেন, গত ১০-১২ দিন ধরে সেলিম এভাবে তাদের উত্ত্যক্ত করে আসছিল। আজকেও উত্ত্যক্ত করলে তাঁকে ধরে ফেলা হয়। পরে তাঁর শাস্তি চেয়ে ইউএনওর কাছে অভিযোগ করা হয়।

একই কলেজের মানবিক বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের আরেক ছাত্রী জানান, আজ সকালে বাড়ি থেকে উপজেলার ধানজুড়ি মিশনে চিকিৎসার জন্য আসছিলেন তিনি। এ সময় পথে ভ্যানচালক শাহিন বাবু তাঁকে অনুসরণের চেষ্টা করে। এক পর্যায়ে রাস্তায় একা পেয়ে শ্লীলতাহানীর চেষ্টা চালায়। ওই ছাত্রী তখন মুঠোফোনে তাঁর বড় ভাইকে বিষয়টি জানায়। পরে এলাকার লোকজনের সহযোগিতায় শাহিনকে আটক করে পুলিশে দেওয়া হয়। একই ভ্রাম্যমাণ আদালত শাহীন বাবুকেও কারাদণ্ডাদেশ দেন।


মন্তব্য