kalerkantho

রবিবার । ১১ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


৩৫ জন শ্রমিক ছাটাই, জলঢাকায় শ্রমিকদের প্রতিবাদ

জলঢাকা(নীলফামারী)    

২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৭:৫৬



৩৫ জন শ্রমিক ছাটাই, জলঢাকায় শ্রমিকদের প্রতিবাদ

নীলফামারীর জলঢাকায় গতকাল মঙ্গলবার ৩৫ জন শ্রমিককে কাজ হতে ছাটাই করায় এক প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।   রাত নয়টায় জলঢাকা উপজেলা শ্রমিক ঐক্য পরিষদের আয়োজনে লেবার ইউনিয়ন বাসস্ট্যান্ড কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সভায় সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি শ্রী পরেশ চন্দ্র কাচু।

এসময় বক্তব্য রাখেন, জেলা রেস্তোরা শ্রমিক ইউনিয়ন সাধারন সম্পাদক রহিদুল ইসলাম, ছ'মিল শ্রমিক ইউনিয়ন সভাপতি পহজলুর রহমান, কাঠ মিস্ত্রী শ্রমিক ইউনিয়ন সভাপতি শ্রী অনিল চন্দ্র রায়,ডেকারেটর শ্রমিক ইউনিয়ন সভাপতি আমিনুর রহমান রিক্সা শ্রমিক ইউনিয়ন সভাপতি আবুল বাশার মিন্টু, হকার্স শ্রমিক ইউনিয়ন সভাপতি শফিয়ার রহমান, দোকান কর্মচারী ইউনিয়ন সভাপতি গোলাম মোস্তফা, নির্মাণ শ্রমিক ইউনিয়ন সভাপতি লোকমান হোসেন, লেবার ইউনিয়ন সভাপতি আতিয়ার রহমান, ফারুক হোসেন প্রমূখ।

সভায় ছাটাইয়ের স্বীকার বাবুল হোসেন বাবু,ইউনুছ আলী, রমজান,রশিদুল ও আব্দুল হামিদ অভিযোগ করে জানান, উপজেলার রশিদপুর এলাকায় প্রায় নয় বছর পূর্বে প্রতিষ্ঠিত কাজী ফার্মস লিমিটিডে প্রতিষ্ঠালগ্ন হতে আমরা ৩৫ জন শ্রমিক কাজ করে আসছি। গত ২৪জুলাই/১৬ কাজ করা কালীন ওই এলাকার প্রভাবশালী,নব-নির্বাচিত ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান জামিনুর রহমানের হুকুমে ও মিজানুর রহমানের নেতৃত্বে কাজের মধ্যে থাকা অবস্থায় আমাদেরকে ভয়-ভীতি দেখিয়ে ফার্ম হতে বের করে দেয়। এবং সেখানে আমরা যারা লেবার হিসাবে ছিলাম তাদের কাউকেও ফার্মের ভেতরে কাজ করার জন্য ঢুকতে দেওয়া হচ্ছেনা। আমরা পরিবার-পরিজন নিয়ে এখন মানবেতর দিন কাটাচ্ছি। "উপজেলা লেবার শ্রমিক ইউনিয়ন সাধারন সম্পাদক জোনাব আলী বলেন,'ওই এলাকার প্রভাবশালী ও নব-নির্বাচিত চেয়ারম্যান মুরগীর বিষ্ঠার ব্যবসা নিয়ন্ত্রণ করতেই ফার্মের কিছু অসাধু কর্মকর্তার জোকসাজশে দীর্ঘদিনের কর্মরত লেবারদেরকে বেআইনী ভাবে বিতাড়িত করেছে।

তিনি আরও বলেন,অবিলম্বে ঘটনার সুষ্ঠ তদন্ত এবং বেআইনী ভাবে ৩৫ জন লেবারের যথাযথ ক্ষতিপূরনসহ কাজে পূণর্বহালের দাবী জানাচ্ছি। তা নাহলে আগামী ২৭ সেপ্টেম্বর দুপুরে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের মাধ্যমে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও শ্রমমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করে মানববন্ধন কর্মসূচি করা হবে। এবিষয়ে ফার্মটির লেবার সর্দার সোলেমান আলী জানান, 'স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়াম্যানের পক্ষে কাজ না করা ও মুরগীর বিষ্ঠার ব্যবসায় গোপনীয়তা ফাঁস হবার ভয়েই আমাদেরকে বাদ দেওয়া হয়েছে।

'এবিষয়ে রশিদপুর কাজী ফার্মস এক্সিকিউটিভ ফয়সালের সাথে কথা হলে তিনি বিষয়টি অবগত নন। তবে এনিয়ে তিনি এডমিনের সাথে যোগাযোগ করতে বলেন। এবিষয়ে জানতে চাইলে অভিযুক্ত প্রভাবশালী  জামিনুর রহমান  বলেন, 'এমুহুর্তে আমার মাথা ঠিক নাই,পরে কথা বলেন। '


মন্তব্য