kalerkantho

শনিবার । ৩ ডিসেম্বর ২০১৬। ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ২ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


ঘাতক ট্রাক কেড়ে নিল মাদ্রাসা ছাত্রীর প্রাণ

নীলফামারী প্রতিনিধি    

২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৬:৩৪



ঘাতক ট্রাক কেড়ে নিল মাদ্রাসা ছাত্রীর প্রাণ

বোনের বাড়িতে বেড়াতে যাওয়ার আনন্দ শেষে বাড়ি ফেরা হলো না মাদ্রাসার অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী ফেরদৌসী আক্তারের (১৪)। ঘাতক ট্রাক কেড়ে নিয়েছে তার প্রাণ।

গতকাল মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে নীলফামারীর জলঢাকা-রংপুর সড়কের কিশোরগঞ্জ উপজেলার রণচণ্ডি ইউনিয়নের এক নম্বর ওয়ার্ডের কমিউনিটি পুলিশ বক্স নামক স্থানে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত ফেরদৌসী রণচণ্ডি ইউনিয়নের ডাঙ্গাপাড়া গ্রামের মফছিল আহমেদের মেয়ে এবং রণচণ্ডি বালিকা দাখিল মাদ্রাসার অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী।

প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয়রা জানায়, ফেরদৌসী ঘটনার দিন সন্ধ্যায় একই ইউনিয়নের উত্তরপাড়া গ্রামে চাচাতো বোনের বাড়িতে দাওয়াত খেতে যায়। এ সময় ফেরদৌসীর সঙ্গে ছিলেন চাচা সিরাজুল ইসলাম (৫৫) ও চাচাতো ভাই মোশাররফ হোসেন (২২)। দাওয়াত খেয়ে রাত ১০টার দিকে পায়ে হেঁটে বাড়িতে ফিরছিলেন তারা। পথে  জলঢাকা-রংপুর সড়ক পার হওয়ার সময় জলঢাকা থেকে রংপুরগামী একটি দ্রুতগতির ট্রাক (ঢাকা মেট্রো ট-১১-১২৯০) ফেরদৌসীকে চাপা দিলে ঘটনাস্থলেই মারা যায় সে।

ঘাতক ট্রাকটি পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে ফেরদৌসীর সঙ্গে থাকা চাচাতো ভাই মোশাররফ ও দুলাভাই রশিদুল দৌঁড়ে ওই ট্রাকের ডালায় ওঠেন। এরপর মুঠোফোনে পরিবারের লোকজন ও পুলিশকে খবর দিলে রংপুর শহরের মেডিক্যাল মোড়ে ট্রাকসহ চালক হাবিব হোসেনকে (৪০) আটক করে পুলিশ। এ ঘটনায় আজ বুধবার সকালে ফেরদৌসীর বাবা মফছিল আহমেদ বাদী হয়ে কিশোরগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন কিশোরগঞ্জ থানার ওসি মো. বজলুর রশিদ।

 


মন্তব্য