kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


সাভারে অভিনব প্রতারণার শিকার গৃহবধূ

নিজস্ব প্রতিবেদক, সাভার (ঢাকা)    

২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৫:৫০



সাভারে অভিনব প্রতারণার শিকার গৃহবধূ

সাভারে অভিনব কায়দায় প্রতারিত হয়ে প্রায় ১৫ হাজার টাকা খুইয়েছেন এক গৃহবধূ। আজ বুধবার সকালে সাভার পৌর এলাকার গেণ্ডা মহল্লায় রেনু বেগম (৪০) নামের ওই গৃহবধূর কাছ থেকে পল্লীবিদ্যুৎ অফিসের কর্মচারী পরিচয়ে বিদ্যুৎ বিলের বকেয়া টাকা প্রদানের কথা বলে ১৪ হাজার ৮০০ টাকা নিয়ে চম্পট দিয়েছে এক প্রতারক।

পরে পল্লীবিদ্যুৎ অফিসের আসল কর্মচারী ওই গৃহবধূর বকেয়া বিদ্যুৎ বিল অনাদায়ের অভিযোগে বিদ্যুৎ সংযোগ বিছিন্ন করা হবে বলে জানাতে গেলে প্রতারণার বিষয়টি ধরা পড়ে।

প্রতারণার শিকার ওই গৃহবধূ জানান, তাদের বাড়ির জুলাই ও আগস্ট মাসের বিদ্যুৎ  বিল বকেয়া ছিল। আজ বুধবার সকালে তাদের বাড়িতে সাভার পল্লীবিদ্যুৎ সমিতি ৩ এর কর্মচারী পরিচয় দিয়ে রাহাত (২০) নামের এক যুবক বিলের টাকা প্রদানের জন্য চাপ দিতে থাকেন। কয়েকদিন পর তিনি বকেয়া বিদ্যুৎ বিলের টাকা পরিশোধ করতে পারবেন বলে জানালে ওই যুবক বুধবারই তাদের বিদ্যুৎ লাইন বিচ্ছিন্ন করার হুমকি দিলে তিনি প্রতিবেশীর কাছ থেকে ১৪ হাজার ৮০০ টাকা ধার নিয়ে ওই যুবককে প্রদান করলে সে বিদ্যুৎ বিলের কাগজে একটি মোবাইল নম্বর লিখে (০১৭৪৮০৫৬০১৫) ও স্বাক্ষর করে তড়িঘড়ি করে চলে যান। এর কিছুক্ষণ পর  পল্লীবিদ্যুতের আসল কর্মচারী শাজাহান মিয়া বকেয়া বিল প্রদানের তাগাদা দিতে গেলে তিনি (গৃহবধূ) কিছুক্ষণ আগের ঘটনা শাজাহান মিয়াকে খুলে বলেন। ফলে প্রতারণার বিষয়টি ধরা পড়ে। পরে তিনি (গৃহবধূ) সাভার পল্লীবিদ্যুৎ সমিতি ৩ এর অফিসে গিয়ে সহকারী জেনারেল ম্যানেজার (অর্থ ও রাজস্ব) ফায়সাল হোসেনকে বিষয়টি জানালে তিনি ওই গৃহবধূকে সাভার মডেল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দেওয়ার পরামর্শ দেন।

এদিকে, পল্লীবিদ্যুতের গ্রাহকরা অভিযোগ করে জানান, পল্লীবিদ্যুতের কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের সহায়তায় প্রতারকরা গ্রাহকদের সঙ্গে বিভিন্ন সময় প্রতারণা করে টাকা হাতিয়ে নিলেও পল্লীবিদ্যুতের কর্মকর্তারা কোনো ব্যবস্থা নেননি। " এ বিষয়ে সাভার পল্লীবিদ্যুৎ সমিতি ৩ এর সহকারী জেনারেল ম্যানেজার (অর্থ ও রাজস্ব) ফায়সাল হোসেন জানান, গ্রাহকদের স্বার্থে প্রতারণা ঠেকাতে তারা বুধবারই গেণ্ডা এলাকায় মাইকিং করার ব্যবস্থা করবেন।

 


মন্তব্য