kalerkantho

শনিবার । ৩ ডিসেম্বর ২০১৬। ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ২ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


আটক ২

বেড়ায় দুই পক্ষের সংঘর্ষে আহত ৫

আঞ্চলিকপ্রতিনিধি, পাবনা    

১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৬:১৮



বেড়ায় দুই পক্ষের সংঘর্ষে আহত ৫

পাবনার বেড়ায় ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে দুই মহল্লার বাসিন্দাদের মধ্যে দফায় দফায় ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া, দোকান ও বাড়ি ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে। এতে পাঁচজন আহত হয়েছে।

এ ঘটনায় দুইজনকে আটক করেছে পুলিশ। এদিকে, স্কুলের প্রধান শিক্ষক মো.  গিয়াস উদ্দিন আহম্মেদ বেড়া বিবি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে বহিরাগতদের খেলাধুলা না করার জন্য মাইকিং করেছেন।

এলাকাবাসী সুত্রে জানা যায়, গতকাল রবিবার বিকেলে পৌর এলাকার বনগ্রাম দক্ষিণ  মহল্লার সওদাগড়পাড়ার রাজু, হেলাল আসকার, সামিরুলসহ ২০-২২ জন ছেলে বেড়া বিবি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে ফুটবল খেলছিল। বিকেল সাড়ে ৫টায় চটক্যা গোষ্ঠীর অনিক, সাইদ, হানিফ, জন, বাবুল, রবিন, শামিমসহ ১৫ থেকে ২০ জন ছেলে ফুটবল মাঠে প্রবেশ করে তাদের খেলা বন্ধ করে দেয়। এ সময় তাদের মধ্যে বাকবিতণ্ডা হয়। একপর্যায়ে উভয় পক্ষ সংঘবদ্ধ হয়ে লাঠিসোঁটা ও ধারালো অস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। প্রায় আধা ঘণ্টা ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া চলে। সংঘর্ষে হাবুল (৩২), সাইফুলসহ (৩৫) পাঁচজন গুরুতর আহত হয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে তাদের ছত্রভঙ্গ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

এদিকে, সংঘর্ষের খবর দুই মহল্লায় ছড়িয়ে পড়লে পরে রাত সাড়ে ৮টায় দুইপক্ষ  আবারো লাঠিসোঁটা, ইটপাটকেল ধারালো অস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। এ সময় তারা  দুইটি বাড়ি এবং তিনটি দোকান ভাঙচুর করে। মুহূর্তের মধ্যে এলাকার দোকানপাট বন্ধ হয়ে যায়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। পুলিশ অভিযান চালিয়ে ঘটনায় জড়িত সন্দেহে মনিরুল ইসলাম (৩৫) ও চাদুল ইসলাম (৪৩) নামে দুইজনকে আটক করে। এ ঘটনার পর এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।

বেড়া উপজেলা আওয়ামী লীগ সহসভাপতি এম এ ছালাম সন্ত্রাস, চাঁদাবাজি, মাদক ব্যবসায়ীদের আইনের আওতায় এনে শাস্তিমুলক ব্যবস্থা গ্রহণ করে এলাকায় আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে পুলিশ প্রসাশনের কাছে জোর দাবি জানান। এ ব্যাপারে বেড়া মডেল থানার ওসি ফিরোজ আহম্মদ বলেন, "ফুটবল খেলা নিয়ে ছেলেদের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টাধাওয়ার ঘটনা ঘটে। পরিস্থিতি এখন নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। এ ঘটনায়  মনিরুল ইসলাম ও চাদুল ইসলাম নামের দুইজনকে আটক করা হয়েছে। "  

 


মন্তব্য