kalerkantho

মঙ্গলবার । ৬ ডিসেম্বর ২০১৬। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


দুদকের মামলা

শেরপুরে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যানসহ ৬ মেম্বারের জামিন নামঞ্জুর

শেরপুর প্রতিনিধি    

১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৭:২৩



শেরপুরে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যানসহ ৬ মেম্বারের জামিন নামঞ্জুর

শেরপুরে দুদকের দায়ের করা অর্থ আত্মসাত মামলায় সদর উপজেলার কামারিয়া ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান নূরে আলম সিদ্দিকী এবং তার সময়কালের দুই নারী  সদস্যসহ সাবেক ছয় মেম্বারের (ইউপি সদস্য) জামিন আবেদন দায়রা আদালতেও নামঞ্জুর হয়েছে। আজ রবিবার দুপুরে উভয় পক্ষের শুনানি শেষে জেলা ও দায়রা জজ কিরণ শংকর হালদার জামিন আবেদন নাকচ করে আগামী ২ অক্টোবর পরবর্তী তারিখ ধার্য করেন।

একইসঙ্গে মামলাটি বিচারের জন্য জামালপুরে দুদকের বিশেষ আদালতে পাঠানোর আদেশ দেন। মামলার অন্য আসামিরা হলেন সাবেক ইউপি মেম্বার মো. বয়তুল্লাহ, মোশারফ হোসেন, আব্দুল মালেক, আব্দুর রশিদ, সাবেক সংরক্ষিত সদস্য হাজেরা বেগম এবং  ইসমত আরা।

আদালত সূত্রে জানা যায়, ইউনিয়ন পরিষদে দায়িত্বে থাকাকালে কামারিয়া ইউনিয়নের তৎকালীন চেয়ারম্যান নুরে আলম সিদ্দিকী এবং সাত ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে ২০১৪ সালের ৩ ডিসেম্বর শেরপুর সদর থানায় সাতটি মামলা দায়ের করে দুদক। দুর্নীতি দমন কমিশনের সমন্বিত জেলা কার্যালয় টাঙ্গাইলের উপসহকারী পরিচালক কমল কুমার রায়ের দায়ের করা ওইসব মামলায় বিভিন্ন প্রকল্পের ৬৪ লাখ ৫ হাজার ৬৭৬ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ করা হয়। মামলাগুলো দায়েরের পর আসামিরা উচ্চ আদালতে আত্মসমর্পণ করে অন্তবর্তীকালীন জামিন পান।

এদিকে, সাতটি মামলার মধ্যে ছয়টিতেই তদন্ত শেষে দুর্নীতি দমন কমিশনের সমন্বিত জেলা কার্যালয় টাঙ্গাইল উপসহকারী পরিচালক মোস্তফা বুরহান উদ্দিন আহম্মদ গত ৩১ মে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। গত ৪ সেপ্টেম্বর দুপুরে আসামিদের অন্তবর্তীকালীন জামিনের মেয়াদ শেষ হওয়ায় স্থায়ী জামিনের প্রার্থনার বিষয়ে উভয় পক্ষের শুনানি শেষে নিম্ন আদালত তা নাকচ করে তাদেরকে জেলা কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। এরপর থেকে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান নূরে আলম সিদ্দিকী এবং দুই  মেম্বারসহ সাবেক ৬ ইউপি মেম্বার জেলা কারাগারে রয়েছেন।

 


মন্তব্য