kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


মধুপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় আহত মা-ছেলের মৃত্যু

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৩:৫৭



মধুপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় আহত মা-ছেলের মৃত্যু

শনিবার সন্ধ্যায় টাঙ্গাইল-ময়মনসিংহ সড়কে ট্রাক-বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষের ঘটনায় আহত মা-ছেলের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে এ দুর্ঘটনায় মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল ছয়জনে।

শনিবার রাতে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মা ও আজ রবিবার সকালে ঘাটাইল সিএমএইচ এ ছেলের মৃত্যু হয়। তারা হলেন কালিহাতী উপজেলার বিলপালিমা গ্রামের লুৎফর রহমান তালুকদারের স্ত্রী চম্পা আক্তার লাইলী (৪৫) ও তার ছেলে লিখন (৮)। লিখন স্থানীয় প্রিপারেটরি কিন্ডারগার্টেনের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র ছিল।

নিহতদের পরিবারের সদস্য টাঙ্গাইল পৌরসভার কর্মরত সেনেটারি ইন্সপেক্টর সফিকুল ইসলাম মন্টু বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, চম্পা ব্যুরো বাংলাদেশ মধুপুরে হিসাবরক্ষক হিসেবে কর্মরত ছিলেন। তিনি মধুপুর পৌর এলাকার টেংরি সিঅ্যান্ডবি এলাকায় সপরিবারে বসবাস করেন। ঈদের ছুটি কাটিয়ে গ্রামের বাড়ি থেকে পরিবার নিয়ে মধুপুরের বাসায় ফিরছিলেন তিনি। এদিকে, চট্টগ্রাম ক্যাডেট কলেজের ছাত্র একই পরিবারের অপর ছেলে লিমন ঢাকা সিএমএইচে চিকিৎসাধীন।

এর আগে মৃত চারজনের মধ্যে তিনজনের মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হলেও বাকি একজনের বেওয়ারিশ মরদেহ মধুপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে রয়েছে। সকাল ৯টা পর্যন্ত তার খোঁজে কেউ হাসপাতালে আসেননি বলে জানান দায়িত্বপ্রাপ্ত চিকিৎসক তারিকুল ইসলাম।

শনিবার সন্ধ্যায় টাঙ্গাইল-ময়মনসিংহ সড়ক ট্রাক-বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে ঘটনাস্থলেই নারী পুরুষসহ চারজন নিহত ও ১৯ জন আহত হন। পরে আহত ১৯ জনের মধ্যে ১৩ জনকে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে, তিনজনকে ঘাটাইল সিএমএইচ ও বাকি তিনজনকে মধুপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে মধুপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রমেন্দ্র নাথ বিশ্বাস নিহতের পরিবারের জন্য তাৎক্ষণিক ২০ হাজার টাকা ও আহতদের পরিবারকে ২ থেকে ১০ হাজার টাকা অনুদান দেওয়ার ঘোষণা দেন। এ সময় মধুপুর পৌর মেয়র মাসুদ পারভেজও উপস্থিত ছিলেন।

 


মন্তব্য