kalerkantho

বুধবার । ৭ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৬ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


ভোলায় পৃথক দুর্ঘটনায় নিহত ৩

ভোলা প্রতিনিধি   

১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২০:০২



ভোলায় পৃথক দুর্ঘটনায় নিহত ৩

ভোলা সদর উপজেলা ও তজুমদ্দিনে শনিবার পৃথক দুর্ঘটনায় এক শিক্ষকসহ তিনজন নিহত হয়েছেন।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, শনিবার সকাল ১০টার দিকে ভোলা সদর উপজেলার পূর্ব ইলিশা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক খবির হোসেন মাহেন্দ্রতে চরে স্কুলের সামনে নামেন।

এ সময় ইলিশা সড়ক দিয়ে আসা একটি যাত্রীবাহী বাস শিক্ষক খবিরকে ধাক্কা দিলে সে গুরুতর আহত হন। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে প্রথমে ভোলা সদর হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে দ্রুত বরিশাল শের-ই-বাংলা চিকিৎসা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করেন। বরিশাল নেওয়ার পথেই সকাল সাড়ে ১১টার দিকে তার মৃত্যু হয়। ইলিশা পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ আবুল বশার এ খবরের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, লাশ ময়না তদন্তের জন্য ভোলা সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরন করা হয়েছে। পুলিশ যাত্রীবাহী বাসটি আটক করেছে।

একই দিনে তজুমদ্দিনে সড়ক দুর্ঘটনায় ও পানিতে বিদ্যুতায়িত হয়ে দুইজন নিহত হয়েছে। শনিবার দুপুর ১টার দিকে উপজেলার শম্ভুপুর ইউনিয়নের বাংলাবাজার ব্রিজ থেকে নামার সময় সাত যাত্রী নিয়ে ব্যাটারিচালিত অটোরিকসা (বোরাক) উল্টে পড়ে যায়। এ সময় অটোর চাঁপায় মাহবুবুর রহমান (৩৫) নামে এক যাত্রী গুরুতর আহত হয়। তাকে উদ্ধার করে তজুমদ্দিন হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষনা করেন। নিহত মাহবুব রংপুর জেলার পীরগঞ্জ উপজেলার বাঘজোয়া গ্রামের আঃ রব মিয়ার ছেলে। তিনি শম্ভুপুর ইউনিয়নের কোড়ালমারা গ্রামের পাঠান বাড়ির শামছুল হকের জামাতা। স্ত্রী ও সন্তান নিয়ে শশুর বাড়িতে ঈদ শেষে ঢাকায় কর্মস্থলে ফিরছিলেন তিনি।

অপরদিকে বেলা ১টার দিকে নিজ বাড়ির পুকুরে মাছ ধরতে গিয়ে পানিতে বিদ্যুতায়িত হয়ে মারা যায় শম্ভুপুর ই্উনিয়নের শিবপুর গ্রামের আঃ মালেকের ছেলে আঃ মন্নান (২২)।

নিহত মন্নানের সহোদর মিরাজ ও হান্নান জানান, বাড়ির পুকুরের ওপর দিয়ে সামছুল হকের ঘর থেকে পারভীন বেগম বিদ্যুতের সাইড লাইন নেয়। বিদ্যুতের তারটি পানির সাথে লেগেছিল। মাছ ধরতে মন্নান পানিতে নামলে সে বিদ্যুষ্পৃষ্ট হয়। তাকে দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে আসলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন।

তজুমদ্দিন থানার ওসি একেএম শাহিন মন্ডল জানান, পৃথক ঘটনায় নিহতদের লাশ উদ্ধার করে সুরতহাল রিপোর্ট শেষে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে।


মন্তব্য