kalerkantho

বুধবার । ৭ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৬ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


সাভারে গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার, স্বামী আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক, সাভার (ঢাকা)   

১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৯:১৮



সাভারে গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার, স্বামী আটক

সাভারে নিজ ঘরের সিলিং ফ্যানের সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় এক নারীর মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মৃতদেহ উদ্ধারের পর প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিহতের স্বামী রেজাউল করিমকে আটক করেছে পুলিশ।

শুক্রবার গভীর রাতে সাভার পৌর এলাকার ডগরমোড়া মহল্লার জনৈক আব্দুল হালিমের ভাড়া বাড়ি থেকে হাফিজার মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। নিহত হাফিজা আক্তার রানী (১৯) খুলনার পাইকগাছা উপজেলার গোপালপুর গ্রামের হাফিজুর রহমানের মেয়ে।

নিহতের বাবা হাফিজুর বলেন, সাভার পৌর এলাকার ডগরমোড়া মহল্লার রেজাউল করিমের সাথে হাফিজা আক্তার রানীর বছর দুয়েক আগে বিয়ে হয়। সাভার নিউ মার্কেটে ‘খুলনা থ্রী পিস হাউজ’ নামে রেজাউলের একটি কাপড়ের দোকান আছে। তিনি অভিযোগ করেন, তার মেয়ের স্বামী দীর্ঘদিন ধরে মেয়ের কাছে যৌতুকের টাকা দাবি করে নির্যাতন করতো। যৌতুক দাবি করে না পেয়ে রেজাউলই তার মেয়েকে হত্যা করে ঝুলিয়ে রেখেছে। ঈদের আগে রেজাউলকে কিছু টাকাও দেওয়া হয়। সে আরও টাকা দাবি করলে শুক্রবার রাতে হাফিজার সঙ্গে তার কথা কটাকাটি হয়। তাদের মধ্যে ঝগড়ার বিষয়টি তার মেয়ে রাতে ফোনে তাকে জানিয়েছিল। তিনি গাজীপুরে থাকেন। ভোরে মেয়ের বাসায় এসে তাকে মৃত দেখতে পান তিনি। তার ধারনা, হাফিজা টাকা এনে দিতে অস্বীকার করলে রেজাউল তাকে হত্যা করে লাশ ঘরের সিলিং ফ্যানের সঙ্গে ঝুলিয়ে রাখে।

সাভার মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এসএম কামরুজ্জামান জানান, শুক্রবার গভীর রাতে তাদের ঘর থেকে হাফিজার লাশ উদ্ধার করা হয়। সকালে রেজাউল পালিয়ে যাওয়ার সময় প্রতিবেশীদের সন্দেহ হলে তাকে আটকে রাখে। পরে পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। এটি হত্যা না আত্মহত্যা ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পেলে তা নিশ্চিত করা যাবে। নিহতের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।


মন্তব্য