kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


যৌতুক: ডিমলায় ই-সেন্টার প্রশিক্ষকের আত্মহনন

নীলফামারী প্রতিনিধি   

১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৮:২১



যৌতুক: ডিমলায়  ই-সেন্টার প্রশিক্ষকের আত্মহনন

নীলফামারীর ডিমলা উপজেলা পরিষদের ই-সেন্টারের প্রশিক্ষক জয়নাব বানু (২৮) আত্মহনন করেছেন। শনিবার সকালে তার বাবার বাড়িতে ঘরের বৈদ্যতিক পাখার সঙ্গে গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহনন করেন।

জয়নাব বানু ডিমলা সদর ইউনিয়নের বাবুরহাট রাজবাড়ী পাড়া গ্রামের জামিয়ার রহমানের মেয়ে। ২০১০ সাল থেকে উপজেলা ই-সেন্টারের প্রশিক্ষক হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন।

এলাকাবাসী ও পারিবারিক সুত্র জানায়, ২০১৪ সালের নভেম্বর মাসে একই উপজেলার ঝুনাগাছ চাপানি ইউনিয়নের চাপানি গ্রামের ছাদেক হোসেনের ছেলে মোস্তাফিজুর রহমানের সঙ্গে জয়নাবের বিয়ে হয়। সে সময়ে যৌতুকের ১০ লাখ টাকার মধ্যে নগদ ৬ লাখ টাকা কনেপক্ষ বর পক্ষকে পরিশোধ করেন। বাকি ৪ লাখ টাকা যৌতুকের দাবিতে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে দ্বন্দ চলছিল বেশ কিছুদিন ধরে। এমন দ্বন্দের জেরে বাবার বাড়িতে অবস্থান  করলে ঈদুল আযাহায় শ্বশুড় বাড়ীর লোকজন এমনকি স্বামী মোস্তাফিজুর রহমান জয়নাবের কোন খোঁজ খবর নেননি। গত শুক্রবার বিকেলে শ্বশুর ছাদেক আলী পুত্রবধু জয়নাবের দেখা করতে আসলে শ্বশুড়ের সঙ্গে জয়নাবের বচসা হয়।

জয়নাবের স্বামী মোস্তাফিজুর রহমান বর্তমানে লালমনিরহাট জেলার পাটগ্রাম উপজেলায় বেসরকারী সংস্থা পপির এলাকা ব্যবস্থাপক হিসেবে কর্মরত আছেন বলে জানায় পরিবারের সদস্যরা।

জয়নাব বানুর চাচা মো. নুরুজ্জামান বলেন, প্রায় দুই বছর আগে মোস্তাফিজুর রহমানের সঙ্গে জয়নাবের বিয়ে হয়। বিয়ের সময় ১০ লাখ টাকা যৌতুক ঠিক হলেও জয়নাবের বাবা ৬ লাখ টাকা পরিশোধ করেন। বাকি ৪ লাখ টাকার চাপ দিয়ে আসছিল মোস্তাফিজুরসহ তার পরিবারের সদস্যরা। গত রমজানের ঈদে জয়নাব তার শ্বশুর বাড়িতে ঈদ করেছে। এবার কোরবানির ঈদে সে শ্বশুর বাড়িতে যায়নি, জামাইও আমাদের বাড়িতে আসেনি। তাদের স্বামী স্ত্রীর মধ্যে কি হয়েছে জানি না।

এব্যাপারে মুঠো ফোনে (০১৭১৭২১৩৪৪৭) একাধিকবার চেষ্টা করে জয়নাবের স্বামী মোস্তাফিজুর রহমানের সঙ্গে কথা বলা সম্ভব হয়নি।

ডিমলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. রেজাউল করিম বলেন, জয়নাব বানু উপজেলা পরিষদের ই-সেন্টারের প্রশিক্ষক ছিলেন। পারিবারিক সমস্যার কারণে সে আত্মহত্যা করছেন বলে শুনেছি।

ডিমলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোয়াজ্জেম হোসেন বলেন, জয়নাবের বাবা জামিয়ার রহমান এ ঘটনায় একটি অপমৃত্যুর মামলা করেছেন। সকাল ১১টার দিকে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নীলফামারী আধুনিক সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।


মন্তব্য