kalerkantho

রবিবার । ১১ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


হবিগঞ্জে যৌতুকের জন্য অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২১:৪৪



হবিগঞ্জে যৌতুকের জন্য অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যা

হবিগঞ্জে যৌতুকের জন্য সাত মাসের অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে স্বামীর বিরুদ্ধে। এই অভিযোগে নিহত নারী তাহেরা আক্তার আয়েশার (২২) স্বামী রাসেল মিয়াকে (৩০) আটক করেছে পুলিশ।

গতকাল বৃহস্পতিবার গভীর রাতে হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলায় এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও নিহতের পরিবারের সদস্যরা জানান, প্রায় নয় মাস আগে চুনারুঘাট উপজেলার আবদুস ছাত্তারের মেয়ে আয়েশার সঙ্গে বিয়ে হয় একই উপজেলার সাদিকপুর গ্রামের মৃত হরমুজ আলীর ছেলে রাসেল মিয়ার। বিয়ের সময় রাসেলের পরিবারের দাবি অনুযায়ী মোটরসাইকেলসহ যাবতীয় মালামাল যৌতুক হিসেবে দেওয়া হয়। তবে কিছু ফার্নিচার দেওয়া বাকি ছিল। এই ফার্নিচারের জন্য স্বামীসহ শ্বশুর বাড়ির লোকজন বারবার আয়েশাকে চাপ দিচ্ছিল। এ নিয়ে গতকাল বৃহস্পতিবার গভীর রাতে তাঁকে বেধড়ক মারপিট করেন রাসেল মিয়া ও তাঁর পরিবারের লোকজন। এক পর্যায়ে আয়েশা মারা যান। আজ শুক্রবার সকালে হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন। পরে আয়েশার লাশ দাফন করার জন্য বাড়ি নিয়ে যায় রাসেল মিয়ার পরিবারের সদস্যরা।  

নিহত তাহেরার চাচাতো ভাই সাজিদ মিয়ার দাবি, যৌতুকের বাকি থাকা শো-কেস ও ওয়্যারড্রোবের জন্য তাহেরাকে রড দিয়ে পিটিয়ে হত্যা করেছেন তাঁর স্বামী ও স্বামীর বাড়ির লোকজন। খবর পেয়ে চুনারুঘাট থানা পুলিশ আজ দুপুরে লাশটি উদ্ধার করে হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালের মেডিক্যাল অফিসার ডা. দেবাশীষ দাস জানান, আঘাতে নিহত আয়েশার মাথার ডান ও বাম দিকের হাড় ভেঙে গেছে।

এ ব্যাপারে চুনারুঘাট থানার ওসি নির্মলেন্দু চক্রবর্তী জানান, আয়েশাকে হত্যার অভিযোগে স্বামী রাসেল মিয়াকে আটক করা হয়েছে। এ বিষয়ে মামলা হলে তদন্ত করে তাঁর বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


মন্তব্য