kalerkantho

রবিবার । ১১ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


টাম্পাকোর ধ্বংসস্তূপ অপসারণ চলছে

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১২:৩১



টাম্পাকোর ধ্বংসস্তূপ অপসারণ চলছে

গাজীপুরে টঙ্গী বিসিকি শিল্পনগরীতে অবস্থিত টাম্পাকো কারখানায় বয়লার বিস্ফোরণ ও অগ্নিকাণ্ডের ঘটনার ২ দিন পর ধ্বংসস্তূপ অপসারণের কাজ শুরু হয়েছে। আজ সোমবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে সেনাবাহিনীর ১২ ইঞ্জিনিয়ারিং ব্যাটালিয়ন এ অপসারণ কাজ শুরু করে।

এদিকে কারখানায় বয়লার বিস্ফোরণ ও অগ্নিদ্বগ্ধের ঘটনায় আরও ১২ জন নিখোঁজ রয়েছে বলে জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে। এ পর্যন্ত এ ঘটনায় ৩০ জনেরও বেশি লোক প্রাণ হারিয়েছেন। আরও অনেকে আহত হয়ে বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। গাজীপুর জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে কর্মরত নিখোঁজ শ্রমিকদের তথ্য দেওয়ার জন্য কারখানাটির পাশে একটি তথ্যকেন্দ্র চালু করেছে। কেন্দ্রে দায়িত্বরত আবদুল মান্নান জানান, এখন পর্যন্ত কারখানার ১২ জন শ্রমিক নিখোঁজ রয়েছেন।

ররিবার রাতে কারখানাটির ভেতর থেকে আরও ৬টি লাশ উদ্ধার করা হয়। এ উদ্ধারের পরও ১২ জন শ্রমিক নিখোঁজ হওয়ার তথ্য রয়েছে বলে জানান আবদুল মান্নান। জানা গেছে, কারখানাটিতে শ্রমিক, কর্মচারী, কর্মকর্তাসহ ২ হাজারের মতো লোক ৩ শিফটে কাজ করতেন। শনিবার ভোর ৬টার দিকে কারখানাটিতে বয়লার বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। ওই সময় শুক্রবার রাতের শিফটের ১২০ থেকে ১৩০ জন শ্রমিক কাজ করছিলেন বলে কারখানার একজন নিরাপত্তাকর্মী ঘটনার দিন জানিয়েছিলেন। তবে গাজীপুর জেলা প্রশাসক এস এম আলম জানান, ৮০ জনের মতো শ্রমিক ওই সময় কাজ করছিলেন।

তবে শিফট পরিবর্তনের সময় হওয়ায় শনিবারে সকালের শিফটে কাজ করার জন্য অনেকে তখন কারখানাটির ভেতরে প্রবেশ করেন। আর ওই সময় বয়লার বিস্ফোরণের এ ঘটনা ঘটে। ফলে এ ঘটনার শিকার হতে হয় অনেককে। ঘটনার শিকার হয়ে এখনও অনেকে টঙ্গী, ঢাকাসহ বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তাদের চিকিৎসার ব্যয় সরকার বহন করবে বলে ঘোষণা দিয়েছেন স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী।

এদিকে কারখানার ধ্বংসস্তূপের ভেতর নিখোঁজ হওয়া শ্রমিকরা আটকা পড়েছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। তবে ওখানে আটকা পড়লেও তাদের জীবিত উদ্ধার হওয়া নিয়ে আশঙ্কা রয়েছে। বয়লার বিস্ফোরণ ও অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় পুরো কারখানাটি ধ্বংসস্তুপে পরিণত হয়েছে। কারখানার চারতলা ভবনসহ বাউন্ডারি দেয়াল ধসে পড়েছে। কারখানার ভেতরে থাকা আসবাবপত্র, কাঁচামাল সবকিছু পুড়ে রীতিমতো ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয়েছে কারখানাটি। এমনকি অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় পাশের একটি পাঁচতলা ভবনেও আগুন লেগে যায়। এ ভবনটিও ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে বলে ফায়ার সার্ভিস সূত্রে জানা গেছে।

 


মন্তব্য