kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


জলঢাকায় মন্দিরের জমি দখলমুক্ত করার দাবিতে মানববন্ধন

নীলফামারী প্রতিনিধি   

১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৭:৪৬



জলঢাকায় মন্দিরের জমি দখলমুক্ত করার দাবিতে মানববন্ধন

নীলফামারীর জলঢাকা উপজেলা শহরের শত বছরের পুরানো কেন্দ্রীয় দূর্গা মন্দিরের জমি দখলমুক্ত করার দাবিতে মানববন্ধন করেছে সনাতন হিন্দু ধর্মের অনুসারীরা। আজ রবিবার বেলা ১১টার দিকে উপজেলা শহরের জিরো পয়েন্টে দুই ঘণ্টাব্যাপী এ কর্মসূচি পালন করা হয়।

এ সময় ওই মন্দিরের সাধারণ সম্পাদক অনিল রায়ের সভাপতিত্বে সংক্ষিপ্ত এক সমাবেশে কর্মসূচির সাথে সংহতি প্রকাশ করে বক্তৃতা দেন পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক একে আজাদ, উপজেলা সেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক মশিউর রহমান বাবু, মন্দির কমিটির সদস্য পরেশ চন্দ্র রায়, তুলিপ চন্দ্র রায়, কুলো চন্দ্র রায়, অবিনাশ চন্দ্র রায়, প্রভাষক হিরম্ব কুমার রায়।

মন্দির পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক অনিল চন্দ্র রায় অভিযোগ করে বলেন, ১৩ শতক জমির ওপর প্রতিষ্ঠিত ওই মন্দিরের ছয় শতাংশ জমি দখল করে শহরের কলেজ পাড়া গ্রামের প্রদীপ কুমার রায় ও সন্তোষ কুমার রায় দোকানঘরসহ বিভিন্ন স্থাপনা নির্মাণ করেছেন। শুধু তাই নয়, তারা ওই মন্দিরের জায়গায় প্রতিনিয়ত ময়লা আবর্জনা ফেলে পুরোটাই দখলের পায়তারা করছেন। এতে মন্দিরের পবিত্রতা যেমন নষ্ট হচ্ছে, তেমনি জায়গা সংকটে পূজা-অর্চণায় সমস্যায় পড়ছেন ভক্তরা। বিষয়টি প্রশাসনকে জানানো হলে তদন্ত করে ওই অবৈধ স্থাপনা সরানোর নোটিশ প্রদান করলেও দখলদাররা তা কর্ণপাত করছেন না। ওই অবৈধ স্থাপনা প্রশাসনিক হস্তক্ষেপে উচ্ছেদ করে মন্দিরের জমি দখলমুক্ত করার দাবি জানান তারা।

তবে দখলের অভিযোগ অস্বীকার করে প্রদীপ কুমার রায় ও সন্তোষ কুমার রায় বলেন, আমরা মন্দিরের জমি দখল করিনি। হাটের জায়গায় দোকানঘর নির্মাণ করে হোটেলসহ বিভিন্ন ব্যবসা করছি।

এ ব্যাপারে জলঢাকা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুহাম্মদ রাশেদুল হক প্রধান বলেন, বিষয়টি আমি জানার পর দুই পক্ষকে ডেকেছি। তাদের সাথে আলোচনা করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিব।


মন্তব্য