kalerkantho

রবিবার । ১১ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


জলঢাকায় সরকারী জমি নিয়ে দুই পক্ষের বিবাদ

জলঢাকা(নীলফামারী) প্রতিনিধি   

১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৬:৫৬



জলঢাকায় সরকারী জমি নিয়ে দুই পক্ষের বিবাদ

নীলফামারীর জলঢাকা পৌরসভার প্রাণকেন্দ্রে  সরকারী সম্পত্তি নিয়ে  ব্যবসায়ী ও মন্দির কমিটির মধ্যে চলছে টানা হেঁচড়া। তবে দখলে নেওয়া জমির বৈধ কাগজ-পত্র কোন পক্ষের হাতেই নেই এমন কথা প্রচলিত আছে।

শুধু মৌখিক চুক্তির ভিত্তিতে উভয় পক্ষ নিজেদে মত করে দীর্ঘদিন সেই সম্পত্তি ভোগ করে আসছে।  

জানা যায়, জলঢাকা পৌর বাজারে ১৯শতাংশ ১নং খতিয়ানভূক্ত  সম্পত্তি  নিজেদের দখলে রেখে সেখানে একটি মন্দির ও কয়েকজন ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী  ব্যবসা করে আসছিল। গত ১সেপ্টেম্বর উপজেলা নির্বাহী অফিসার একজন হোটেল ব্যবসায়ীর দোকান ঘর সংস্কার কাজ বন্ধ করে এবং দোকানটিতে তালা দেন। তিনি ওই হোটেল ব্যবসায়ী ও মন্দির কমিটিকে তাদের কাগজ দেখাতে বলেন। সেখানে মন্দির কমিটি এবং ওই ব্যবসায়ী যৌক্তিক কোন কাগজ প্রদর্শন করতে পারেনি।   ফলে সেই সরকারী সম্পত্তি নিয়ে ব্যবসায়ী ও মন্দির কমিটি চলছে টানাপোড়েন।

এদিকে আজ রবিবার মৌখিক চুক্তি দাবী করে সেই জমি উদ্ধারের দাবীতে মানববন্ধন করেছে মন্দির কমিটি। অন্যদিকে সম্প্রতি মন্দিরে কিছু দুরে অবস্থিত একটি খাবার হোটেল বন্ধ করে দেওয়ায় চরম দুর্ভোগে পরেছেন হোটেল মালিকসহ ৩০টি পরিবার। ওই হোটেলের কর্মচারী রনজিৎ,জগদীশ,তাপস ও ছবিন জানায়, পুজোর আগে হোটেলটি খুলে না দিলে পরিবার-পরিজন নিয়ে পূজার আনন্দ থেকে আমরা বঞ্চিত হব।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রাশেদুল হক প্রধান জানান, “মন্দিরসহ সেখানে অবস্থানরত ব্যবসায়ীক সম্পত্তিটুকু সরকারের। ”

মন্দির কমিটির সভাপতি দিপেন্দ্রনাথ সরকার জানান, “আমার জানা মতে মন্দিরে জায়গা কিছু অংশ সরকারের এবং কিছু অংশ হাটের। ”


মন্তব্য