kalerkantho

মঙ্গলবার । ৬ ডিসেম্বর ২০১৬। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


বরগুনায় শিক্ষার্থীকে যৌন হয়রানির চেষ্টা, স্বাস্থ্য সহকারী আটক

বরগুনা প্রতিনিধি   

১০ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২৩:৪৫



বরগুনায় শিক্ষার্থীকে যৌন হয়রানির চেষ্টা, স্বাস্থ্য সহকারী আটক

বরগুনা সরকারি মহিলা কলেজের উচ্চ মাধ্যমিক দ্বিতীয় বর্ষের এক শিক্ষার্থীকে দোকানে আটকে রেখে যৌন হয়রানির চেষ্টায় এনামুল কবির নামের এক স্বাস্থ্য সহকারীকে আটক করেছে বরগুনা থানা পুলিশ।  

প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানা গেছে, আজ শনিবার রাত ৯টার দিকে চরকলোনী এলাকার সদর রোডে বরগুনা রেস্ট হাউজ কমপ্লেক্সের নীচ তলার একটি কমপিউটারের বন্ধ দোকানের ভেতর থেকে ডাকাডাকির শব্দ পায় তারা।

ভেতর থেকে নারী কণ্ঠ শুনতে পেয়ে এ সময় থানায় খবর দেয় স্থানীয়রা। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে ওই শিক্ষার্থীকে উদ্ধার করে।     

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, এনামুল কবির বরগুনা সদর উপজেলার গৌরীচন্না ইউনিয়নের একজন স্বাস্থ্য সহকারী। দীর্ঘদিন ধরে সে চরকলোনী এলাকার সদর রোডে বরগুনা রেস্ট হাউজ কমপ্লেক্সের একটি কম্পিউটারের দোকান চালিয়ে আসছিল।  

ভুক্তভোগী ওই শিক্ষার্থী সাংবাদিকদের জানান, এনামুল কবীরের কম্পিউটারের দোকানে সে কম্পিউটার শিখেছিল। কম্পিউটার শেখার সার্টিফিকেট দেবে বলে এনামুল তাকে দোকানে আসতে বলে।

ওই শিক্ষার্থীর বরাত দিয়ে জানা যায়, আজ শনিবার বিকেল ৫টার দিকে মেয়েটি কম্পিউটারের দোকানে এলে কম্পিউটারে কাজ করতে বসিয়ে দেয় এনামুল কবীর। পরে কৌশলে দোকানের শাটার আটকে দিয়ে বেরিয়ে যায় এনামুল। বাইরে থেকে দোকান বন্ধ দেখে এনামুলকে ফোন করে ওই শিক্ষার্থী। এ সময় মোবাইল ফোনে তাকে টাকা-পয়সা দেওয়ার কথা বলে ফুসলানোর চেষ্টা করে এনামুল। মোবাইল ফোনে বারবার দোকান খুলে তাকে ছেড়ে দেওয়ার অনুরোধ জানালেও দোকান খোলেনি এনামুল। পরে নিরুপায় হয়ে রাত ৯টার দিকে দোকানের শাটারে ধাক্কাধাক্কি করে শব্দ করতে থাকে সে। এ সময় স্থানীয় জনতা টের পেয়ে পুলিশে খবর দেয়।

এ ব্যাপারে বরগুনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রিয়াজ হোসেন পিপিএম জানান, অভিযুক্ত এনামুল কবীরকে আটক করা হয়েছে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে।

ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী অভিযোগ দায়ের করতে চাইলে মামলা নেওয়া হবে বলেও জানান তিনি।  


মন্তব্য