kalerkantho

রবিবার। ৪ ডিসেম্বর ২০১৬। ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


বঙ্গোপসাগরে ২০ জেলে অপহরণ, মুক্তিপণ দাবি

পাথরঘাটা(বরগুনা)প্রতিনিধি   

৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৪:৪৫



বঙ্গোপসাগরে ২০ জেলে অপহরণ, মুক্তিপণ দাবি

সুন্দরবনের দস্যু বাহিনী ২০ জেলেকে অপহরণ করে মুক্তিপণ দাবি করেছে। বৃহস্পতিবার রাত থেকে শুক্রবার সকাল পর্যন্ত বঙ্গোপসাগরে শ্যালার চর এলাকায় অপহরণ ও লুটপাট চলে।

আজ শুক্রবার ৯ সেপ্টেম্বর সকালে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন কোস্ট গার্ড পশ্চিম জোনের অপারেশন অফিসার লে. ফরিদুজ্জামান।

সুন্দরবনসংলগ্ন বঙ্গোপসাগরের শ্যালার চর এলাকা থেকে জলদস্যূ সাগর বাহিনী জেলেবহরে হামলা চালিয়ে অন্তত ২০ জেলেকে অপহরণ করেছে।

র‌্যাব ৮ এর অভিযানে জলদস্যু শান্ত ও আলম বাহিনীর ১৪ সদস্য বিপুল পরিমাণ আগ্নেয়াস্ত্রসহ বৃহস্পতিবার সকালে বরিশালে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও র‌্যাবের ডিজির নিকট আত্মসর্পণ করার ২৪ ঘণ্টার মাথায় একরকম চ্যালেঞ্জ করে সাগর বাহিনী জেলেদের অপহরণ করে।

লে. ফরিদুজ্জামান জানান, সুন্দরবনকেন্দ্রিক বঙ্গোপসাগরের জলদস্যূ সাগর বাহিনী কর্তৃক বৃহস্পতিবার গভীর রাত থেকে শুক্রবার সকাল পর্যন্ত পৃথকভাবে অপহরণ ও লুট চালায় জেলেবহরে। এ সময় অন্তত ২০ জেলেকে অপহরণ করা হয়েছে। তবে কি পরিমাণ ট্রলার নিয়েছে তা এখন পর্যন্ত সংশ্লিষ্ট কেউ নিশ্চিত করেনি।

তিনি আরও জানান, সমুদ্রে কোস্ট গার্ডের নিয়মিত অভিযান চলে। ডাকাতির খবর শোনামাত্রই কোস্ট গার্ডের বিপুল সংখ্যক সদস্য নিয়ে অভিযান শুরু হয়েছে।

এদিকে বরগুনা জেলা মৎস্যজীবী ট্রলার মালিক সমিতির সভাপতি গোলাম মোস্তফা চৌধুরী জানান, গত দুই সপ্তাহ ধরে এই 'সাগর' বাহিনীই ট্রলার মালিকদের কাছে মোবাইল ফোনে বিকাশের মাধ্যমে আগাম চাঁদা চেয়েছিল। টাকা না দিলে সাগর বাহিনী ট্রলার ও জেলেদের সাগরে না আসার জন্য হুমকিও দিয়েছিল। তার মতে টাকা দিতে না পারায় এই অপহরণের ঘটনা ঘটিয়েছে সাগর বাহিনী।  


মন্তব্য