kalerkantho

বুধবার । ৭ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৬ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


নারায়ণগঞ্জের মহাসড়কে তীব্র যানজট

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৬:০৮



নারায়ণগঞ্জের মহাসড়কে তীব্র যানজট

নারায়ণগঞ্জে ঢাকা-সিলেট ও ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কে বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই তীব্র যানজট লক্ষ করা গেছে। এ দুটি মহাসড়কের যান চলাচল খুবই ধীরগতির ছিল।

দায়িত্বে থাকা ট্রাফিক কর্মকর্তারা জানান, ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের রূপগঞ্জে ভুলতা ফ্লাইওভার নির্মাণ, কাঁচপুর সেতু ও মেঘনা সেতুতে সকালে কয়েকটি যানবাহন বিকল হওয়ার কারণে যানজট প্রকট আকারে রূপ নেয়। ঢাকা-সিলেট ও ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কে দিয়ে দেশের ৩৮টি রুটে যান চলাচল করে। ফলে রাজধানী ঢাকা থেকে সেতুর পূর্ব ঢাল পর্যন্ত যানবাহনের চাপ থাকে সবচেয়ে বেশি। সেতুর কয়েক কিলোমিটার পূর্বে নারায়ণগঞ্জের শিমরাইল এলাকা পর্যন্ত মহাসড়ক ৮ লেনের। ফলে রাজধানী হতে আসা যানগুলো একসঙ্গে আসার পর শিমরাইলে মোড়ে যানজটের শিকার হয়। কারণ শিমরাইল হতে কাঁচপুর সেতু পর্যন্ত সড়কটি চার লেনের। এর মধ্যে আবার শিমরাইলে বিভিন্ন পরিবহনের কাউন্টার ও যাত্রী ওঠানামা হয়।

অন্যদিকে ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কে রয়েছে কয়েকটি বাসস্ট্যান্ড। এর মধ্যে মদনপুর এলাকায় আবার রয়েছে মদনপুর-গাজীপুর এশিয়ান হাইওয়ে। যে কারণে মদনপুরের ওই স্পটে সর্বদা যানজট থাকায় সেটার প্রভাব পড়ে ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কেও। এ মহাসড়কের কাঁচপুর, দড়িকান্দি, মোগরাপাড়া, মেঘনা ও চিপরদী এলাকাতেও গণপরিবহন থামিয়ে যাত্রী ওঠানো-নামানো হয়। এ ব্যাপারে শিমরাইল ট্রাফিক ইনচার্জ (টিআই) মোল্লা তাসলিম হোসেন জানান, বুধবার রাত থেকে বৃহস্পতিবার ভোর পর্যন্ত ৩টি গাড়ি কাঁচপুর সেতুর ওপর উঠতে গিয়ে বিকল হয়ে পড়ায় সড়কে যানজট শুরু হয়।

তিনি বলেন, সব সময় কাঁচপুর সেতুর পাশে একটি রেকার রাখা হয়েছে, কোনো যানবাহন বিকল হলে সাথে সাথে ওই রেকার দিয়ে সরানো হচ্ছে। আমরা চেষ্টা করছি, কোনো যাত্রীকে যাতে যানজটে ভোগান্তি পোহাতে না হয়। আগে শুধু দিনের বেলায় ২ শিফটে ডিউটি করা হতো। এখন আমরা ঈদ উপলক্ষে সেখানে রাতের বেলায়ও ডিউটি করছি। কাঁচপুর হাইওয়ে পুলিশের ওসি শেখ শরিফুল আলম জানান, সোনারগাঁয়ের মেঘনা সেতু এলাকায় রাত থেকে ভোর পর্যন্ত ৬টি গাড়ি বিকল হয়ে পড়ে। তা ছাড়া একটি দুর্ঘটনাও ঘটেছে। এতে যানচলাচল বন্ধ হয়ে যায়। যার ফলে এ যানজটের সৃষ্টি হয়েছে।

 


মন্তব্য