kalerkantho

রবিবার । ১১ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় শিক্ষার্থীকে কুপিয়ে জখম

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২৩:৫৫



প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় শিক্ষার্থীকে কুপিয়ে জখম

প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় দিনাজপুরের বোচাগঞ্জ উপজেলায় অষ্টম শ্রেণির এক শিক্ষার্থীকে ঘরে ঢুকে কুপিয়ে জখম করেছে এক বখাটে। তাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আজ বুধবার সকালে উপজেলার সেতাবগঞ্জ পৌর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় পুলিশ বখাটে ইব্রাহিম চৌধুরীকে গ্রেপ্তার করেছে। সে একই এলাকার সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মৃত কফিলউদ্দিন ওরফে বাচ্চা চেয়ারম্যানের ছেলে।

মেয়েটির বাবা বিজিবি সদস্য অভিযোগ করেন, ২০১৫ সালের ২৫ ডিসেম্বর ইব্রাহিমের বিরুদ্ধে বোচাগঞ্জ থানায় তিনি জিডি করেছিলেন, কিন্তু পুলিশ কোনো পদক্ষেপ নেয়নি। তিনি জানান, ইব্রাহিমের হুমকির কারণে প্রায় তিন মাস তার মেয়ের স্কুলে যাওয়া বন্ধ ছিল।  

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, পড়ালেখার সুবিধার জন্য ওই ছাত্রী সেতাবগঞ্জে ভাড়া বাসায় মা ও নানা-নানির সঙ্গে থাকত। তার বাবা চাকরিসূত্রে অন্যত্রে থাকেন। বেশ কিছুদিন ধরে বখাটে ইব্রাহিম তাকে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। প্রায় সময়ই তাকে উত্ত্যক্ত করত।

পরিবারের সদস্যরা জানান, প্রেমের প্রস্তাবে সাড়া না দেওয়ায় বুধবার সকাল ৯টার দিকে ইব্রাহিম মেয়েটির শোবার ঘরে ঢুকে চাপাতি দিয়ে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা করে। এ সময় ছাত্রীটির চিৎকারে পরিবারের সদস্য ও প্রতিবেশিরা এগিয়ে এলে চাপাতি উঁচিয়ে পালিয়ে যায় ইব্রাহিম। পরে ওই ছাত্রীকে প্রথমে বোচাগঞ্জ উপজেলা কমপ্লেক্সে ও পরে দিনাজপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়।

দিনাজপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের সার্জারি বিভাগের চিকিৎসক ডা. মো. ফায়সুল ইসলাম রানা জানান, মেয়েটির হাত, মাথাসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপানো হয়েছে। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক। উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে দিনাজপুর জেলার পুলিশ সুপার হামিদুল আলম জানান, ঘটনার পরপরই ছটকুর মোড় এলাকা থেকে ইব্রাহিম চৌধুরীকে গ্রেপ্তার করে বোচাগঞ্জ থানা পুলিশ। এ ঘটনায় ছাত্রীর পরিবারের পক্ষ থেকে মামলার প্রস্তুতি চলছে।


মন্তব্য