kalerkantho

সোমবার । ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ । ৮ ফাল্গুন ১৪২৩। ২২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৮।


নরসিংদীতে ডিবি পুলিশের বিরুদ্ধে দোকানিকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২১:৪৫



নরসিংদীতে ডিবি পুলিশের বিরুদ্ধে দোকানিকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ

নরসিংদী জেলা গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) বিরুদ্ধে মোহাম্মদ আলী (৩০) নামের এক মুদি দোকানিকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। আজ বুধবার দুপুরে নরসিংদীর বেলাব উপজেলার মাটিয়ালপাড়া (বাগানবাড়ি) এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এদিকে এ ঘটনায় জড়িত পুলিশদের শাস্তি দাবি করে বেলাব বাজারের ব্যবসায়ীরা বিক্ষোভ মিছিল করেছেন।

নিহত ব্যক্তির পরিবারের অভিযোগ, গোয়েন্দা পুলিশের সদস্যরা মোহাম্মদ আলীকে রড দিয়ে পিটিয়ে এবং ইট দিয়ে বুকে আঘাত করে হত্যা করেছেন। তবে পুলিশের দাবি, মোহাম্মদ আলী একজন মাদক ব্যবসায়ী। গ্রেপ্তারের পর তাঁকে নিয়ে নরসিংদীতে যাওয়ার পথে তিনি অসুস্থ হন। পরে হাসপাতালে নেওয়ার পর তিনি মারা যান।

প্রত্যক্ষদর্শী ও নিহত ব্যক্তির পরিবারের লোকজন জানায়, নিহত মোহাম্মদ আলী মাটিয়ালপাড়া এলাকার বাসিন্দা। এলাকায় তিনি মুদি দোকান চালাতেন। এর পাশাপাশি তিনি বেলাব-হাতিরদিয়া সড়কের সিএনজি-অটোরিকশা সমিতির তত্ত্বাবধায়ক (সুপারভাইজার) এবং একটি মুঠোফোন কোম্পানির টাওয়ারের নিরাপত্তাকর্মী ছিলেন। আজ বুধবার দুপুর দুইটার দিকে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) খোকন চন্দ্র সরকারের নেতৃত্বে পুলিশ তাঁর দোকানে অভিযান চালায়। এসআই খোকন অভিযোগ করেন, মোহাম্মদ আলী মাদক বিক্রি করেন। মোহাম্মদ আলী এ অভিযোগ অস্বীকার করলে রড দিয়ে পিটিয়ে এবং ইট দিয়ে বুকে আঘাত করে তাঁকে আহত করা হয়। পরে তাঁকে সেখান থেকে বেলাব থানায় নিয়ে তাঁর বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে একটি মামলা দেওয়া হয়। মামলায় তাঁর কাছ থেকে ১০০টি ইয়াবা বড়ি উদ্ধারের কথা উল্লেখ করা হয়। এরপর দুপুর তিনটার দিকে মোহাম্মদ আলী গুরুতর অসুস্থ হলে তাঁকে নরসিংদী জেলা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সাড়ে তিনটার দিকে মারা যান তিনি।

স্থানীয় লোকজন জানান, মোহাম্মদ আলীর মৃত্যুর খবর পেয়ে বেলাব বাজারের ব্যবসায়ীরা ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রেখে বিক্ষোভ মিছিল করেন।

নরসিংদী জেলা হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক শামছুর রহমান বলেন, যখন মোহাম্মদ আলীকে হাসপাতালে আনা হয়, তখন তাঁর শ্বাস নিতে কষ্ট হচ্ছিল। অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাঁকে অক্সিজেন লাগিয়ে ঢাকা মেডিক্যাল হাসপাতালে স্থানান্তর করার জন্য প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছিল। এরই মধ্যে তিনি মারা যান।  

শরীরে কোনো আঘাতের চিহ্ন আছে কি না, জানতে চাইলে এ চিকিৎসক বলেন, সুরতহাল করবে পুলিশ। তাই তারা ভালো বলতে পারবে। আর কী কারণে মোহাম্মদ আলীর মৃত্যু হয়েছে তা লাশের ময়নাতদন্ত ছাড়া বলা যাবে না।  

নিহত ব্যক্তির মা অনুফা বেগম অভিযোগ করেন, ‘পুলিশ আওয়ার লগে লগে আমরা গেছি। পুলিশ পিটাইয়া আমার পোলারে মাইরা ফালাইছে। হেই কোনো মাদকের ব্যবসা করত না। ’ 

তবে এ অভিযোগ অস্বীকার করে এসআই খোকন চন্দ্র সরকার বলেন, মোহাম্মদ আলী একজন মাদক ব্যবসায়ী। তাঁর বিরুদ্ধে মাদকের একটি মামলা ছিল। তাঁকে কোনো মারধর করা হয়নি। তাঁর কাছ থেকে ১০০টি ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। পরে বেলাব থানায় মামলা করে নরসিংদী নিয়ে আসার পথে মরজাল এলাকায় তিনি অসুস্থ হন। পরে তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাইদুর রহমানও একই দাবি করেন।

এদিকে হত্যার অভিযোগ ওঠার পর আজ সন্ধ্যার দিকে বেলাব উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) উম্মে হাবিবা, বেলাব থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. কাইয়ুম আলীসহ কয়েকজন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

 


মন্তব্য