kalerkantho


দেশের বিভিন্ন স্থানে পানিতে ডুবে ৯ শিশুর মৃত্যু

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০৯:২৫



দেশের বিভিন্ন স্থানে পানিতে ডুবে ৯ শিশুর মৃত্যু

দেশের বিভিন্ন জায়গায় পুকুর ও নদীতে পড়ে ৯ শিশুর মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। সোমবার দুপুর থেকে সন্ধ্যার মধ্যে মৃতদেহ ভেসে ওঠার পর লাশ উদ্ধার করা হয়। খেলাধুলা করার একপর্যায়ে তারা পানিতে পড়ে যায় বলে পরিবারের সদস্যরা ধারণা করছে। নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয় ব্রহ্মপুত্র নদ থেকে তিন শিশুর ভাসমান লাশ উদ্ধার করা হয়। তারা হলো উপজেলার দৌলরদী গ্রামের জালালউদ্দিনের মেয়ে সাবিকুন নাহার (৭), একই গ্রামের আবদুল হাইয়ের মেয়ে মিথিলা আক্তার (৭) ও মোজাম্মেল হকের ছেলে নিরব হোসেন (৭)। তারা সবাই প্রতিবেশী।

সোনারগাঁ থানার ওসি শাহ মো. মঞ্জুর কাদের বলেন, বিকালে তাদের লাশ ভেসে উঠলে এলাকার লোকজন ডেমরার মাতুয়াইল এলাকার মাতৃ ও শিশু ইনস্টিউট হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে চিকিৎসক তাদের মৃতু ঘোষণা করেন। শিশুরা খেলাধুলা করার একপর্যায়ে পানিতে পড়ে যায় বলে স্বজনরা মনে করছে। এ ছাড়া হবিগঞ্জে পৃথক পুকুর থেকে যমজ দুজনসহ চার শিশুকে ভাসমান অবস্থায় উদ্ধারের পর সদর হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক বলেন, বিকালে বৃষ্টির পর শিশুদের বাড়ির পাশের পুকুর থেকে ভাসমান অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসে তার স্বজন ও স্থানীয়রা।

শিশুদের পেটে অতিরিক্ত পানি প্রবেশের কারণে হাসপাতালে আনার আগেই তাদের মৃত্যু হয়। খেলাধুলা করার একপর্যায়ে তারা পানিতে পড়ে যায় বলে পরিবারের সদস্যরা ধারণা করছে। চার শিশু হলো সদর উপজেলার বগলা খাল গ্রামের মৌলদ মিয়ার ছেলে রুকন মিয়া (৮) ও শায়েস্তানগর এলাকার বাবুল মিয়ার মেয়ে তানিয়া আক্তার (১২) এবং নবীগঞ্জ উপজেলার গন্ধ্যা ছালামতপুর রোডের বিলাল মিয়ার আড়াই বছর বয়সী দুই যমজ মেয়ে মারুফা ও মারিয়া।

এদিকে দিনাজপুরের পার্বতীপুর উপজেলায় সোনারবন নদী থেকে দুই শিশুর লাশ উদ্ধার করা হয়। তারা হল দুর্গাপুর সিঙ্গারদাড়ি গ্রামের মেজবাউদ্দিনের ছেলে  রাকিব বাবু (৩) ও তার চাচাতো রিফাত ইসলাম (৪)। পলাশবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোফাখখারুল ইসলাম বলেন, বেলা ৩টায় রাকিব ও রিফাত বাড়ির পাশে সোনারবন নদীতে নামলে ডুবে যায়। স্থানীয় লোকজন তাদের ডুবে যাওয়া দেখতে পেয়ে উদ্ধারে নামলেও ব্যর্থ হয়। বিকেল ৫টায় দুই শিশুর লাশ ভেসে ওঠে।

 


মন্তব্য