kalerkantho

রবিবার। ৪ ডিসেম্বর ২০১৬। ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


জাবিতে দুই শিক্ষার্থীকে মারধর

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২২:১৪



জাবিতে দুই শিক্ষার্থীকে মারধর

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সরকার ও রাজনীতি বিভাগের দুই শিক্ষার্থীকে মারধর করেছে একই বিভাগের কয়েকজন শিক্ষার্থী। তারা হলেন-আ ফ ম কামাউদ্দীন হলের মঈন উদ্দিন আল-হোসাইন ও মোজাহিদুল ইসলাম।

আজ সোমবার দুপুর দেড়টার দিকে সমাজবিজ্ঞান অনুষদ ভবনে বিভাগের করিডরে এ ঘটনা ঘটে।

সরকার ও রাজনীতি বিভাগের শিক্ষার্থীরা জানায়, এ বিভাগের ৪২তম আবর্তনের আসন্ন সার্ক ট্যুরের জন্য কমিটি গঠনের উদ্যোগ নেওয়া হয়। এতে ওই আবর্তনের সংখ্যাগরিষ্ঠ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলের আবাসিক শিক্ষার্থীরা নির্বাচনের মাধ্যমে কমিটি গঠনের দাবি তোলে। কিন্তু অন্যান্য হলের শিক্ষার্থীরা প্রত্যেক হলের শিক্ষার্থীদের সমন্বয়ে কমিটি গঠনের দাবি জানায়। এ নিয়ে গত কয়েকদিন ধরে চলা দ্বন্দ্বে কোনও সিদ্ধান্তে পৌঁছাতে পারেননি শিক্ষার্থীরা। আজ সোমবার দুপুরে সরকার ও রাজনীতি বিভাগের ছাত্রকল্যাণ উপদেষ্টা নাসরীন সুলতানা কমিটি গঠনের ব্যাপারে কথা বলতে শিক্ষার্থীদের তার রুমে ডাকেন। ক্লাস শেষে ওই শিক্ষকের রুমে যাওয়ার পথে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলের ইমরান ফয়সাল, রাকিব হাসান, শেখ জানে আলম ও মাজহারুল আমিনসহ আরও কয়েকজন শিক্ষার্থী মঈন উদ্দিন আল-হোসাইন ও মোজাহিদুল ইসলামকে মারধর করেন।

মারধরের শিকার হওয়া শিক্ষার্থীরা জানান, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলে ৪২তম আবর্তনের ২৯ জন শিক্ষার্থী থাকেন। নির্বাচন হলে তারাই সব পদ পাবে। তাদের পছন্দমতো পদ নেওয়ার প্রস্তাব দিলেও তারা রাজি হয়নি। আমরা মারধরের ঘটনার বিচার চেয়ে বিভাগে লিখিত অভিযোগ দিব।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ইমরান ফয়সাল বলেন, হাতাহাতি হয়েছে। আমরা ওদের সঙ্গে সমঝোতা করার চেষ্টা করছি। তবে শেখ জানে আলম এ ব্যাপারে কোনও মন্তব্য করতে রাজি হননি। আর রাকিব হাসান ও মাজহারুল আমিনের ফোন বন্ধ পাওয়া গেছে।

এ ব্যাপারে ছাত্রকল্যাণ উপদেষ্টা নাসরীন সুলতানা বলেন, ঘটনাটি আমরা শুনেছি। বিষয়টি নিয়ে বিভাগের অন্য শিক্ষকদের সঙ্গে জরুরি সভা হয়েছে। সভায় বিস্তারিত খোঁজ-খবর নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য প্রাথমিক সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।


মন্তব্য