kalerkantho

মঙ্গলবার । ৬ ডিসেম্বর ২০১৬। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


কুমিল্লায় মোটরসাইকেল আরোহীকে পুলিশের চড়, মহাসড়ক অবরোধ

নিজস্ব প্রতিবেদক, কুমিল্লা   

৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৮:২৫



কুমিল্লায় মোটরসাইকেল আরোহীকে পুলিশের চড়, মহাসড়ক অবরোধ

কুমিল্লার চান্দিনায় এক মোটরসাইকেল আরোহীকে পুলিশের চড় মারাকে কেন্দ্র করে মহাসড়ক অবরোধ করে ওই আরোহীর স্থানীয় বাহিনী। আজ সোমবার সকালে কুটুম্বপুর বাস স্টেশন এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

এতে প্রায় ২০ মিনিট মহাসড়ক অবরোধ থাকার পর স্থানীয় প্রশাসনের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে।  

ওই মোটরসাইকেল আরোহী হলেন জাকির হোসেন। তিনি চান্দিনার কুটুম্বপুর গ্রামের মৃত আব্দুল খালেক এর ছেলে।  

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, আজ সোমবার সকাল ১০টায় চান্দিনা থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) রাহাত ছিদ্দিকীর নেতৃত্বে মহাসড়কের কুটুম্বপুর এলাকায় চেকপোষ্ট বসে। এ সময় জাকির হোসেন নামে স্থানীয় এক ব্যক্তি মোটরসাইকেলযোগে চান্দিনা থেকে কুটুম্বপুর আসার পথে পুলিশ তার গতিরোধ করে মোটরসাইকেলের বৈধ কাগজপত্র দেখাতে বলে। এ সময় মোটরসাইকেল আরোহী জাকির কাগজপত্র দেখাতে অস্বীকৃতি জানালে পুলিশ তাকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। পরে তার স্বজনরা ও কুটুম্বপুর গ্রামের প্রায় অর্ধশত মানুষ মহাসড়ক অবরোধ করে। এ খবর পেয়ে চান্দিনা উপজেলা চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা তপন বক্সী, চান্দিনা উপজেলা নির্বাহী অফিসার সুমন চৌধুরী ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।
পরে তাদের উপস্থিতিতে অতিরিক্ত পুলিশ (সদর সার্কেল) সুপার ইমতিয়াজ মাহবুব, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আব্দুল্লাহ আল-মামুন ঘটনাস্থলে স্থানীয়দের সাথে আলোচনা সাপেক্ষে জাকির হোসেনকে ছেড়ে দেয় এবং তার ব্যবহৃত মোটরসাইকেলটির বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।

এ বিষয়ে চান্দিনা থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) রাহাত ছিদ্দিকী জানান, আটককৃত আরোহী জাকির হোসেন মোটরসাইকেলযোগে যাওয়ার পথে পুলিশের চেকপোষ্ট দেখে দ্রুত স্থান ত্যাগ করার চেষ্টা করে। সন্দেহ হওয়ায় আমরা তার গতিরোধ করি। পরে তার ব্যবহৃত ভারতীয় ইয়ামাহা কম্পানীর ফেজার মোটরসাইকেলটির কাগজপত্র আছে কিনা জানতে চাইলে তিনি আমাদের ওপর ক্ষিপ্ত হয়ে এক পর্যায়ে কনস্টেবল নোমানকে ধাক্কা দেয়। এ ঘটনার পর আমি মোটরসাইকেল আরোহীকে একটি চড় দেই এবং তার ব্যবহৃত বাইকটিসহ তাকে থানায় নিয়ে আসলে তার বাহিনীরা মহাসড়ক অবরোধ করে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে।

এ ব্যাপারে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইমতিয়াজ মাহবুব জানান, অবৈধ ও কাগজপত্র বিহীন মোটরসাইকেল এর ভীড়ে বৈধ বাইক চিহ্নিত করতে মালিককে ও রেজিষ্ট্রেশন কাগজপত্র পুলিশ চেক করবে এটাই স্বাভাবিক। আমরা বিষয়টি তদন্ত করে পরবর্তী ব্যবস্থা নেব।


মন্তব্য