kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


জিকা ভাইরাস আতঙ্কে বেনাপোল ইমিগ্রেশনে ফের সতর্কতা জারি

বেনাপোল (যশোর) প্রতিনিধি   

৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৭:৫৯



জিকা ভাইরাস আতঙ্কে বেনাপোল ইমিগ্রেশনে ফের সতর্কতা জারি

জিকা ভাইরাস আতঙ্কে বেনাপোল আন্তর্জাতিক চেকপোস্ট পুলিশ ইমিগ্রেশনে ফের সতর্কতা জারি করা হয়েছে।  গতকাল রবিবার বিকেল ৫টা থেকে বেনাপোল চেকপোস্টে কাস্টমস ও ইমিগ্রেশনে স্বাস্থ্য কর্মীদের অধিক সতর্কতা অবলম্বন করতে দেখা যায়।

সতর্কতা জারির পরপরই আজ সোমবার সকাল থেকে বেনাপোল ইমিগ্রেশনে পাঁচ সদস্যের একটি মেডিক্যাল টিম পাসপোর্টধারী যাত্রীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষার কাজ শুরু করে।

বেনাপোল ইমিগ্রেশন সূত্র জানায়, জিকা ভাইরাস এডিস মশার কামড় থেকে ছড়ায়। এতে গর্ভবর্তী মায়েরা আক্রান্ত হন। এর আগে চলতি বছরের প্রথম দিকে এ ভাইরাসে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। বর্তমানে নতুন করে কয়েকটি দেশে জিকা ভাইরাসে কয়েকজন আক্রান্ত হওয়ার খবরে নতুন করে এ সতর্কতা জারি করা হয়।

এ প্রসঙ্গে বেনাপোল ইমিগ্রেশনের স্বাস্থ্য পরিদর্শক প্রনয় সরকার জানান, বেনাপোল চেকপোস্ট দিয়ে প্রতিদিন চার থেকে সাড়ে চার হাজার পাসপোর্ট যাত্রী চিকিৎসা, ব্যবসা ও ভ্রমণের  কাজে যাতায়াত করেন। এর মধ্যে তিন থেকে চার শতাধিক থাকছে বিদেশি যাত্রী। জিকা ভাইরাস আক্রান্ত নারীদের কেউ যাতে কোনোভাবে বাংলাদেশে প্রবেশ করতে না পারেন এজন্য তারা সতর্ক রয়েছেন।

তিনি আরো জানান, ভারত হয়ে যেসব বিদেশি গর্ভবতী নারীরা আসছেন, বাংলাদেশে ঢোকার আগ মুহূর্তে তাদের শরীরের তাপমাত্রা নির্ণয়সহ কয়েকটি পরীক্ষা করা হচ্ছে। এজন্য ইমিগ্রেশনে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অর্থায়নে থার্মাল স্ক্যানার স্থাপন করা হয়েছে। এতে সহজে এ ভাইরাস শনাক্ত করা যাবে।

এ ব্যাপারে বেনাপোল ইমিগ্রেশনের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা  ইকবাল হোসেন জানান, স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয়ের নির্দেশে স্বাস্থ্য কর্মীরা সকাল থেকে আনুষ্ঠানিকতা শুরু করেছে। তাদের এ কাজে সব ধরনের সহযোগিতা করা হচ্ছে।  


মন্তব্য