kalerkantho


যশোরে এসি লাগানোর সময় পড়ে গিয়ে যুবক নিহত

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২৩:২১



যশোরে এসি লাগানোর সময় পড়ে গিয়ে যুবক নিহত

যশোর শহরে বেসরকারি কুইন্স হাসপাতালের ছয়তলায় শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ যন্ত্র (এসি) লাগানোর সময় পড়ে গিয়ে এক যুবক নিহত হয়েছেন। নিহত যুবক হলেন শহরের শংকরপুর এলাকার মুন্তাজ আলীর ছেলে সোহেল (২২)।

এ ঘটনায় আহত হয়েছেন একই এলাকার তোফাজ্জেল হোসেনের ছেলে হাসান (২২)। আজ রবিবার সন্ধ্যায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, তাঁরা দুজনই এলজি বাটারফ্লাই কোম্পানির যশোর কার্যালয়ের কর্মচারী।

কুইন্স হাসপাতাল ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, হাসপাতালের ছয়তলায় ভবনের দেওয়ালের বাইরের পাশে এসি লাগানোর সময় হঠাৎ তাঁরা দুজন পড়ে যান। মুমূর্ষু অবস্থায় দুজনকে প্রথমে কুইন্স হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়। পরে তাঁদের যশোর ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে নেওয়া হয়। তবে হাসপাতালে নেওয়ার আগেই সোহেল মারা যান।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে কুইন্স হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হুমায়ুন কবির বলেন, ভবনে লাগিয়ে দেওয়ার শর্তে এলজি বাটারফ্লাই কম্পানি থেকে এসি কেনা হয়। ওই কাজের জন্য কম্পানি থেকে দুজন কর্মী পাঠানো হয়। কাজ করতে গিয়ে হঠাৎ তাঁরা ছয়তলা থেকে পড়ে গুরুতর আহত হন। চিকিৎসাধীন অবস্থায় একজন মারা যান।

এ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে যশোর কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. ইলিয়াস হোসেন বলেন, এসি লাগানোর সময় দুজন পড়ে যান। এর মধ্যে একজন মারা গেছেন। গুরুতর আহত অবস্থায় অন্যজনকে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।


মন্তব্য