kalerkantho


গাইবান্ধায় নারী নির্যাতন মামলায় যুবকের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২১:২৯



গাইবান্ধায় নারী নির্যাতন মামলায় যুবকের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

গাইবান্ধায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের মামলায় রেজাউল করীম (৩৮) নামে এক যুবককে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে তাকে এক লাখ টাকা জরিমানা ও আনাদায়ে আরও দুই বছরের কারাদণ্ডের আদেশ দেওয়া হয়েছে। মামলা দায়ের করার দীর্ঘ ১২ বছর পর আজ রবিবার বিকেলে গাইবান্ধা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক রত্নেশ্বর ভট্যচার্জ এ রায় দেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত রেজাউল করীমের বাড়ি সদর উপজেলার সাহাপাড়া ইউনিয়নের খামার টেংগরজানী গ্রামে। তিনি ওই গ্রামের আবু তাহের সর্দারের ছেলে।

যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের বিষয়টি নিশ্চিত করে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবি আবু আহম্মেদ আবদুল্লা কনক জানান, ২০০৪ সালে রেজাউল করীম একই গ্রামের ফুল মিয়ার মেয়ে মরিয়ম খাতুনকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে অবৈধ সম্পর্ক গড়ে তোলে। এতে মরিয়ম অন্তঃসত্ত্বা হয় এবং একটি মেয়ে সন্তান জন্ম দেয়। পরে রেজাউল এ ঘটনা অস্বীকৃতি জানালে মরিয়মের বাবা ফুল মিয়া বাদী হয়ে রেজাউলকে আসামি করে জেলার সদর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন। মামলার তদন্ত শেষে পুলিশ রেজাউল করীমকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন।

তিনি আরও জানান, রবিবার বিচারকার্য চলাকালে সকল সাক্ষ্য প্রমাণের ভিত্তিতে দীর্ঘ শুনানি শেষে বিচারক রেজাউলকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করেন। রায়ের সময় আসামি রেজাউল আদালতে উপস্থিত ছিলেন।


মন্তব্য