kalerkantho

মঙ্গলবার । ৬ ডিসেম্বর ২০১৬। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


রাবি ছাত্রমৈত্রীর নেতা দিলীপের মুক্তি দাবি অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৮:৪৬



রাবি ছাত্রমৈত্রীর নেতা দিলীপের মুক্তি দাবি অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও আওয়ামী লীগকে নিয়ে মন্তব্যের জেরে গ্রেপ্তার রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শাখা বিপ্লবী ছাত্রমৈত্রীর সাধারণ সম্পাদক দিলীপ রায়ের মুক্তি দাবি করেছে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংগঠন অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল।

আজ শনিবার অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত বিবৃতিতে দিলীপ রায়ের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মামলা প্রত্যাহার করে তার নিঃশর্ত মুক্তি দাবি করা হয়েছে।

এছাড়া ৫৭ ধারাসহ আন্তর্জাতিক মানবাধিকার নীতিমালার সাথে সাংঘর্ষিক আইন বাতিল করার দাবি জানানো হয়েছে।

বিবৃতিতে বলা হয়, “ফেসবুকের দুটি পোস্টে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সমালোচনা করায় পুলিশ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী দিলীপ রায়কে গ্রেপ্তার করেছে। পরবর্তীতে তার বিরুদ্ধে ছাত্রলীগের স্থানীয় এক নেতা ৫৭ ধারায় মামলা দায়ের করে। এই আইনে কাউকে ১৪ বছর পর্যন্ত কারাবাস করা লাগতে পারে। ”

বিবৃতিতে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের দক্ষিণ এশিয়ার পরিচালক চম্পা প্যাটেল বলেন, “বাংলাদেশি কর্তৃপক্ষের ৫৭ ধারা বাতিল করা উচিত এবং শান্তিপূর্ণভাবে ভিন্নমত পোষণকারীদের এই আইনের দ্বারা হয়রানি ও হুমকি প্রদান বন্ধ করা উচিত। কোনো দেশে এই ধরনের দমন-পীড়নমূলক আইন থাকা উচিত না। ”

গত ২৮ আগস্ট ফেসবুকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও আওয়ামী লীগকে নিয়ে মন্তব্যের পর বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ নেতাদের হস্তক্ষেপে দিলীপ রায়কে আটক করে পুলিশ।  আটকের পর দিলীপ রায়ের বিরুদ্ধে ৫৭ ধারায় মামলা দায়ের করেন বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি রাশেদুল ইসলাম রাঞ্জু। দিলীপকে ওই মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়। গত বুধবার আগস্ট আদালতে তার জামিনের আবেদন নামঞ্জুর হয়।  


মন্তব্য