kalerkantho

মঙ্গলবার । ৬ ডিসেম্বর ২০১৬। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


পাথরঘাটায় ভুয়া চিকিৎসকের কারাদণ্ড

পাথরঘাটা (বরগুনা) প্রতিনিধি    

২ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৬:৪৮



পাথরঘাটায় ভুয়া চিকিৎসকের কারাদণ্ড

বরগুনার পাথরঘাটায় সৌদি প্রবাসী ক্লিনিক অ্যান্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারের এক ভুয়া চিকিৎসককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে গ্রেপ্তারের পর তাকে  এক বছরের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, গতকাল বৃহস্পতিবার রাত ৯টার সময় পাথরঘাটার কোস্টগার্ড ও পুলিশের সহযোগিতায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. ইকবাল হোসেন সৌদি প্রবাসী ক্লিনিক অ্যান্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারে অভিযান চালান। সেখান থেকে আবুল বাসার নামে এক ভুয়া চিকিৎসককে আটক করা হয়। এরপর তাকে ভ্রাম্যমাণ আদালতে হাজির করে এক বছরের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়। এ সময় কোস্টগার্ডের পাথরঘাটা স্টেশনের কমান্ডার লে. সৈয়দ আবদুর রউফ, পাথরঘাটা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসা কর্মকর্তা ডা. নিরুপম মণ্ডল উপস্থিত ছিলেন।

ভুয়া চিকিৎসক আ. বাশার চাঁদপুর জেলার শাহরাস্তি উপজেলার রগন গ্রামের মোহাম্মদ আলী পাটোয়ারীর ছেলে। তিনি ঢাকার কদমতলীর দনিয়া এলাকায় ১৬১৭ নম্বর বাসার ভাড়াটিয়া বলে পরিচয় দেন। ক্লিনিকের চিকিৎসাপত্রে ও পাশের সার্টিফিকেটে গাইনি ও সার্জারি বিশেষজ্ঞ ডা. এম এ রাশিদ এর নাম ব্যবহার করে গত এক মাস ধরে  পাথরঘাটায় শত শত রোগীকে চিকিৎসা দিয়ে যাচ্ছিলেন তিনি। সাংবাদিকরা জানতে চাইলে আবুল বাশার জানান, তিনি মূলত হার্ডওয়ার ব্যবসায়ী। চিকিৎসকের সঙ্গে থেকে চিকিৎসা পেশায় অভিজ্ঞতা অর্জন করেছেন তিনি।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. ইকবাল হোসেন জানান, জনস্বার্থে ভুয়া চিকিৎসককে আটক করে সাজা দেওয়া হয়েছে। পাথরঘাটায় অবস্থিত সৌদি প্রবাসী ক্লিনিক অ্যান্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারের মালিক পক্ষ ভুয়া চিকিৎসক নিয়োগ দিয়ে মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করেছেন। তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়ার প্রক্রিয়া চলছে।

এ ব্যাপারে পাথরঘাটা সৌদি প্রবাসী ক্লিনিক অ্যান্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারের ২০ জন মালিকের পক্ষে ব্যবস্থাপনা পরিচালক গিয়াস উদ্দিন সিকদার ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, "আমরা অনলাইনে আবেদনের মাধ্যমে চিকিৎসক নিয়োগ দিয়েছি। তার সম্পর্কে আমরা আগে জানতাম না। গত ১৬ আগস্ট বরগুনার সিভিল সার্জন ডা. রুস্তুম আলী আমাদের ক্লিনিক পরিদর্শন করে আমাদের প্রশংসা করেছেন। ভিজিট বইতে তা লেখা রয়েছে। "

বরগুনার ভারপ্রাপ্ত সিভিল সার্জন ডা. আবদুস সালাম বলেন, "সিভিল সার্জন সাহেব হজব্রত পালনে গত ৩০ আগস্ট সৌদি আরব গেছেন। তবে যে প্রতিষ্ঠান ভুয়া চিকিৎসক নিয়োগ দিয়েছে, তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া উচিত। "

 


মন্তব্য