kalerkantho

সোমবার। ২৩ জানুয়ারি ২০১৭ । ১০ মাঘ ১৪২৩। ২৪ রবিউস সানি ১৪৩৮।


ভোলায় ফের বিদ্যুৎ বিভ্রাট, গ্রাহকদের ভোগান্তি

ভোলা প্রতিনিধি    

২ এপ্রিল, ২০১৬ ১৬:২৩



ভোলায় ফের বিদ্যুৎ বিভ্রাট, গ্রাহকদের ভোগান্তি

ভোলায় ফের বিদ্যুৎ বিভ্রাট দেখা দিয়েছে। গত প্রায় এক মাস ধরে বিদ্যুৎ বিভ্রাটের ফলে এ জেলার গ্রাহকরা ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন।

বিশেষ করে জেলার সাত উপজেলায় বিদ্যুৎ বিভ্রাট এখন চরম আকার ধারণ করেছে। আজ শনিবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে হঠাৎ ভোলা শহরে বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ হয়ে যায়। দুপুর দেড়টায় এ রিপোর্ট লেখার সময় পর্যন্ত বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ ছিল। এতে বিদ্যুতের হাজার হাজার গ্রাহক চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন।

গ্রাহকরা জানান, হাজার হাজার কোটি টাকা ব্যয় করে ভোলা সদর উপজেলার বিশ্বরোড এলাকায় গ্যাসভিত্তিক ৩৪.৫ মেগাওয়াট রেন্টাল বিদ্যুৎ উৎপাদনকেন্দ্র স্থাপন ছাড়াও সম্প্রতি বোরহানউদ্দিন উপজেলার কুতুবা ইউনিয়নের দক্ষিণ কুতুবা গ্রামে ২২৫ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনকেন্দ্রসহ প্রায় আড়াই শ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনকেন্দ্র স্থাপন করার পরও জেলায় বিদ্যুৎ বিভ্রাটে সাধারণ গ্রাহকদের মাঝে ক্ষোভ বিরাজ করছে। তাদের মনে হতাশাসহ নানা প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। বিদ্যুৎ গ্রাহকরা আরো জানান, ভোলায় বিদ্যুৎ সরবরাহ কেন্দ্র ওয়েস্টজোন পাওয়ার ডিস্ট্রিভিউশন কম্পানির (ওজোপাডিকো) বিদ্যুৎ লাইনটি জরাজীর্ণ হওয়ার কারণে সামান্য বৃষ্টি-বাতাসের অজুহাতে বিদ্যুৎ  সরবরাহ বন্ধ করে দেওয়া হয়।     

ভোলা শহরের হাসপাতাল রোডের বাসিন্দা বিদ্যুৎ গ্রাহক অ্যাডভোকেট জহুরুল ইসলাম খুসবু ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, "ভোলায় প্রায় আড়াই শ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনকেন্দ্র স্থাপিত হলেও আমরা নিয়মিত বিদ্যুৎ পাচ্ছি না। " তিনি আরো বলেন, "গত প্রায় এক মাস ধরে বিদ্যুৎ আসে আর যায়। গত বৃহস্পতিবার থেকে আজ শনিবার তিন দিন ধরে বিদ্যুৎ বিভ্রাট প্রকট আকার ধারণ করে। শনিবার সকালে বিদ্যুৎ চলে যায়। দুপুর পর্যন্ত বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক হয়নি। " জেলার অন্য উপজেলাগুলোতেও একই অবস্থা বিরাজ করছে বলে জানান বিদ্যুতের গ্রাহকরা।  

এ ব্যাপারে বিদ্যুৎ বিতরণকেন্দ্র ওয়েস্টজোন পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কম্পানি (ওজোপাডিকো) ভোলার নির্বাহী প্রকৌশলী মোহাম্মদ আলী শনিবার দুপুরে কালের কণ্ঠকে জানান, ঝড়ের কবলে বিভিন্ন স্থানে গাছ পড়ে বৈদ্যুতিক তার ছিড়ে যায়। ফলে গত দুই দিন ধরে ভোলায় বিদ্যুৎ বিভ্রাট দেখা দেয়। তিনি আরো বলেন, "বিদ্যুৎ লাইনে মেরামত কাজ চলছে। মেরামত কাজ শেষ হলে আজ শনিবার বিকেলের মধ্যেই ফের বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক রাখা হবে। "
 
এ বিষয়ে ভোলার গ্যাসভিত্তিক ৩৪.৫ মেগাওয়াট রেন্টাল বিদ্যুৎ  উৎপাদনকেন্দ্রের ব্যবস্থাপক হাফিজুর রহমান বলেন, "রেন্টাল বিদ্যুৎকেন্দ্রটি সচল রয়েছে। তবে, ঝড়-বৃষ্টির কারণে বিদ্যুৎ বিতরণকেন্দ্র ওজোপাডিকোর জরাজীর্ণ বিদ্যুৎ লাইনে ত্রুটি দেখা দেওয়ায় বিদ্যুৎ বিভ্রাট দেখা দিয়েছে। " উল্লেখ্য, গত ছয় মাস আগেও সামান্য বৃষ্টির অজুহাতে গত দুই দিন ধরে বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ রাখা হয়েছিল বলে জানিয়েছেন বিদ্যুৎ গ্রাহকরা।

 


মন্তব্য