kalerkantho


সাতক্ষীরায় মাদ্রাসা সুপারকে গলা কেটে হত্যা

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি    

৩১ মার্চ, ২০১৬ ১৮:২১



সাতক্ষীরায় মাদ্রাসা সুপারকে গলা কেটে হত্যা

সাতক্ষীরার শ্যামনগরে এক মাদ্রাসা সুপারকে গলা কেটে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। নিহতের নাম বাবুল আক্তার (৪৫)।

তিনি উপজেলার  রামজীবনপুর মহিলা দাখিল মাদ্রাসার সুপার ছিলেন। আজ বৃহস্পতিবার দুপুর ২টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

শ্যামনগর থানার সহকারী এসআই মো. আসাদুজ্জামান জানান, দুপুর ২টার দিকে ক্লাস শেষ করে বাড়ি যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন রামজীবনপুর মহিলা দাখিল মাদ্রাসার সুপার বাবুল আক্তার। এ সময় নৈশ প্রহরী আবুল কালাম তাঁর কক্ষে ঢুকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে গলা কেটে হত্যা করেন। হত্যাকাণ্ডের পরপরই স্থানীয়রা বিষয়টি জানতে পেরে তাকে দ্রুত শ্যামনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এসআই মো. আসাদুজ্জামান আরো জানান, ঘাতক আবুল কালামকে ওই মাদ্রাসায় দপ্তরি পদে চাকরি দেওয়ার কথা বলে চার লাখ টাকা নেন মাদ্রাসা সুপার বাবুল আক্তার। কিন্তু তা না দিয়ে তাকে নৈশ প্রহরী পদে চাকরি দেওয়া হয়। এ নিয়ে সুপারের সঙ্গে তার বিরোধ চলছিল। প্রতিশোধ নিতে এ হত্যাকাণ্ড ঘটানো হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

সহকারী উপপরিদর্শক আসাদুজ্জামান বলেন, "হত্যার পরপরই ঘাতক আবুল কালাম হত্যায় ব্যবহৃত ধারালো দা নিয়ে পালিয়ে যান। কালাম রামজীবনপুর গ্রামের মোহাম্মদ সরদারের ছেলে। ময়নাতদন্তের জন্য সুপারের লাশ সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। "

 


মন্তব্য