kalerkantho


রাজীবপুর ইউপি নির্বাচন

একই ওয়ার্ডে ৩ ভাই-বোনের ভোট যুদ্ধ

রৌমারী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি   

২৯ মার্চ, ২০১৬ ১৮:১৭



একই ওয়ার্ডে ৩ ভাই-বোনের ভোট যুদ্ধ

কুড়িগ্রামের রাজীবপুর উপজেলার সদর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে একই পরিবারের দুই সহোদর ভাই ও এক বোন একই ওয়ার্ডে প্রার্থী হওয়ার ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছে। ওই ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ড সদস্য পদে বড় ভাই পর্বত আলী (মোড়ক) ও ছোট ভাই আমির আলী (তালা) এবং একই ওয়ার্ডের সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে বোন ফরিদা ইয়াছমিন(তালগাছ) প্রচারণায় মেতে উঠেছেন।

তিন জনেই নিজেদের পক্ষে ভোটারদের দ্বারে দ্বারে ঘুরে ভোট প্রার্থনা করছেন। এক ভাই ভোট প্রার্থনা শেষ না করতেই ছোট ভাই হাজির ভোটের জন্য। এমন ভোট প্রার্থনায় ভোটারদের মাঝেও কৌতুলের সৃষ্টি করেছে।

উপজেলার ধুলাউড়ি গ্রামের মৃত আবুল কাশেমের পুত্র তারা। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ধুলাউড়ি গ্রামের এক ভোটার বলেন, এক ভাই ভোট চেয়ে বাড়ি থেকে যেতে না যেতেই আরেক ভাই হাজির ভোট চাইতে। সব ভোট তাগরেই দিমু আর মানুষের ইচ্ছা নাই? আমরা এক বাড়িতে সব ভোট দিতে পারি না। আরেক ভোটার বলেন, তারা তিন ভাই-বোন তো আছেনই। একই ইউনিয়নের দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীও তাদের নিকট আত্মীয়।

উপজেলা নির্বাচন কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, সদর ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য পদে ওই দুই সহোদর ভাই ও সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে বোন ফরিদা ইয়াছমিন প্রার্থী একে অপরের প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে বড় ভাই পর্বত আলী বলেন, আমি বাড়ির বড় সন্তান। আমি র্নিবাচনে দাড়ানোর ঘোষণা দিয়েছি অনেক আগেই। এরপর হঠাৎ করে ছোট ভাই আমির আলী কয় আমিও নির্বাচনে দাড়াব। তাকে নিষেধ করেছি কিন্তু সে মানে না। আর বোনের বিষয়টি আলাদা।

ছোট ভাই আমীর আলী বলেন, আপন ভাই হইলে কি হবে। আমরা তো এখন পৃথক সংসার করছি।

বোন ফরিদা ইয়াছমিন বলেন,আমার পদ সংরক্ষিত। এখানে পুরুষরা অংশ নিতে পারব না।

এদিকে উপজেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা আব্দুল কুদ্দুছ জানান, আগামি ৩১ মার্চ নির্বাচনের কথা থাকলেও আদালতে মামলার ঝামেলা থাকায় ঘোষিত তারিখে নির্বাচন নিয়ে সংশয় রয়েছে।

 


মন্তব্য