kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৪ জানুয়ারি ২০১৭ । ১১ মাঘ ১৪২৩। ২৫ রবিউস সানি ১৪৩৮।


কন্যা সন্তান জন্ম দেওয়ায় স্ত্রীর হাত ভেঙে দিল স্বামী

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৬ মার্চ, ২০১৬ ২০:৩৩



কন্যা সন্তান জন্ম দেওয়ায় স্ত্রীর হাত ভেঙে দিল স্বামী

লালমনিরহাটে কন্যা সন্তান জন্ম দেওয়ার ‘অপরাধে’ এক গৃহবধূকে বেদম মারধর করে হাত ভেঙে ও মাথা ফাটিয়ে দিয়েছে তারই স্বামী আসাদুল ইসলাম। নির্যাতিত ওই গৃহবধূর নাম আঞ্জুয়ারা বেগম (২৪)।

গতকাল শুক্রবার রাতে হাতীবান্ধা উপজেলার সানিয়াজান ইউনিয়নের নিজ শেখ সুন্দর এলাকায় এ ঘটনাটি ঘটে।

আঞ্জুয়ারার বাবা হাতীবান্ধা উপজেলার গড্ডিমারী এলাকার আব্দুল আজিজ জানান, ৭/৮ বছর আগে তার মেয়ে আঞ্জুয়ারা বেগমের সঙ্গে পার্শ্ববর্তী নিজ শেখ সুন্দর এলাকার আসাদুল ইসলামের বিয়ে হয়। তাদের সাব্বির হোসেন (৪) নামে একটি ছেলে আছে। এই বছরের ২৮ ফেব্রুয়ারি তার মেয়ে আরও একটি কন্যা সন্তানের জন্ম দেয়। তখন থেকেই তার মেয়ের ওপর শুরু হয় অমানুষিক নির্যাতন। গতকাল শুক্রবার রাতে স্বামী আসাদুল ইসলাম কন্যা সন্তান জন্ম দেওয়ার অপরাধে স্ত্রীর ওপর নির্যাতন শুরু করে। ওই সময় আঞ্জুয়ারার মাথা ফেটে যায় এবং বাম হাত ভেঙে যায়। পরে স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে হাতীবান্ধা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। বর্তমানে সে হাতীবান্ধা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

এ বিষয়ে আঞ্জুয়ারা বেগম জানান, গর্ভধারণের পর থেকেই তাকে হুমকি দিয়ে আসছেন তার স্বামী। কন্যা সন্তান জন্ম দিলে তাকে তালাক দিবেন। শুক্রবার নির্যাতন শুরুর পর তিনি ফের একই কথা বলতে থাকে।

হাতীবান্ধা উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা রমজান আলী বলেন, আঞ্জুয়ারা বেগমের মাথায় ৫টি সেলাই দেওয়া হয়েছে। এছাড়া তার বাম হাতের হাড় ফেটে গেছে। তাকে সুস্থ করে তুলতে বেশ কিছুদিন সময় লাগবে।

এ ব্যাপারে হাতীবান্ধা থানার ওসি আব্দুল মতিন বলেন, এ সংক্রান্ত কোনও অভিযোগ এখন পর্যন্ত পাইনি। অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এদিকে, এ ঘটনার পর একাধিকবার যোগাযোগ করেও আঞ্জুয়ারার স্বামী আসাদুল ইসলামের কোনও বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

 


মন্তব্য