kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৪ জানুয়ারি ২০১৭ । ১১ মাঘ ১৪২৩। ২৫ রবিউস সানি ১৪৩৮।


দুর্গাপুরে প্রেমিক যুগলের লাশ উদ্ধার

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী   

২৬ মার্চ, ২০১৬ ১৩:৩৩



দুর্গাপুরে প্রেমিক যুগলের লাশ উদ্ধার

রাজশাহীর দুর্গাপুরের আমগ্রামে একই আমগাছের সঙ্গে এক প্রেমিকযুগলের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকাল শুক্রবার দুপুরে অজানার উদ্দেশে পাড়ি জমানোর পর আজ শনিবার সকালে তাদের লাশ উদ্ধার করা হয়।

হতভাগ্য ওই প্রেমিকযুগল আমগ্রামের আব্দুল মজিদের ছেলে খোকন ইসলাম (২৩) ও আবু সাইদ বুদনের স্ত্রী তিনা খাতুন (২৭)। তাদের দুজনকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ করা হয়েছে খোকনের পরিবার থেকে।

পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ মর্গে পাঠিয়েছে। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানিয়েছেন দুর্গাপুর থানার ওসি পরিমল কুমার চক্রবর্তী।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্র জানায়, এক সন্তানের জননী তিনার সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে রাজশাহী নগরীতে অবস্থিত একটি ইলেকট্রনিক্স দোকানে কর্মরত খোকনের। ওই সম্পর্কের বিষয়টি তিনার স্বামী মেনে নিতে পারেননি। গতকাল শুক্রবার দুপুরে তিনাকে নিয়ে অজানার উদ্দেশে পাড়ি দেন খোকন। তবে তাদের খুঁজতে বের হন তিনার স্বামী আব্দুস সাইদ বুদনসহ তার লোকজন। তারা দিনভর খুঁজেও তিনা ও খোকনের কোনো খোঁজ পাননি বলে রাতে গিয়ে গ্রামের লোকজনকে জানান।

এর পর আজ শনিবার খোকন ও তিনার বাড়ির পাশে একটি আমগাছের সঙ্গে দুজনের ঝুলন্ত লাশ দেখতে পান এলাকাবাসী। পরে পুলিশকে খবর দেওয়া হলে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, তিনা ও খোকনের দুজনের কোমর একই ওড়না দিয়ে বাঁধা ছিল। তাদের লাশও একই ওড়না দিয়ে ঝুলানো ছিল। দুজনের কোমর একসঙ্গে বাঁধার কারণেই বিষয়টি নিয়ে ব্যাপক সন্দেহের সৃষ্টি হয়েছে।

খোকনের পরিবারের লোকজনের দাবি, তাদের দুজনকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করেছে তিনার স্বামীর পরিবারের লোকজন। তাদের প্রেমের সম্পর্ক মেনে নিতে না পেরেই তাদের হত্যা করা হয়েছে বলেও দাবি করেন খোকনের পরিবারের লোকজন। তবে দুর্গাপুর থানার ওসি পরিমল কুমার চক্রবর্তী বলেন, "বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। তাদেরকে হত্যা করা হয়েছে, নাকি তারা নিজেরাই আত্মহত্যা করেছেন, বিষয়টি ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন হাতে পেলেই পরিষ্কার হওয়া যাবে। ''


মন্তব্য