kalerkantho

শনিবার । ২১ জানুয়ারি ২০১৭ । ৮ মাঘ ১৪২৩। ২২ রবিউস সানি ১৪৩৮।


ধর্ষণকারী গ্রেপ্তার

উজিরপুরে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের পর ভিডিওচিত্র ধারণ

   

২৫ মার্চ, ২০১৬ ২০:০৯



উজিরপুরে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের পর ভিডিওচিত্র ধারণ

স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের ঘটনা মোবাইলে ভিডিওচিত্র ধারণ করার ঘটনায় তোলপাড় শুরু হয়েছে বরিশাল জেলার উজিরপুর উপজেলায়। এ ঘটনায় গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে বিক্ষোভ মিছিল করেছেন নারায়ণপুর পল্লী ইউনিয়ন ইনস্টিটিউশন বিদ্যালয়ের শিক্ষক, ম্যানেজিং কমিটির সদস্যসহ শত শত শিক্ষার্থী। অবশেষে ওইদিন রাতে পুলিশ অভিযান চালিয়ে ধর্ষণকারী সুমন তালুকদারকে গ্রেপ্তার করেছে।

এজাহারে জানা গেছে, গুঠিয়া ইউনিয়নের নারায়ণপুর স্কুলের নবম শ্রেণির ওই ছাত্রী গত ১৭ মার্চ বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকীর অনুষ্ঠান শেষে স্কুল থেকে বাড়ি ফিরছিল। পথে বেলা ১২টার দিকে চাগুরিয়া বড়বাড়ির জনৈক মোহাম্মদ হাওলাদারের স্ত্রী আলেয়া ওরফে ফুরফুরি বেগম   কৌশলে ওই ছাত্রীকে ঘরে ডেকে নেয়। কিছু বুঝে ওঠার আগেই ঘরে প্রবেশ করে একই গ্রামের লতিফ তালুকদারের ছেলে ও এলাকার চিহ্নিত বখাটে যুবক সুমন তালুকদার (৩৫)। এ সময় তারা ওই ছাত্রীকে ধারালো অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে ধর্ষণ করে। এরপর ধর্ষণের পুরো চিত্র আলেয়া বেগম মোবাইলে ধারণ করে। পরে সুমন কাউকে না বলার জন্য ধর্ষণের শিকার ওই ছাত্রীকে বিভিন্ন ধরনের ভয়ভীতি প্রদর্শন করে। বাড়িতে ফিরে ওই ছাত্রী তার নানিকে বিষয়টি অবহিত করে।

পরে রাজমিস্ত্রি হিসেবে ঢাকায় কর্মরত ওই ছাত্রীর বাবাকে মোবাইল ফোনে বিষয়টি অবহিত করা হয়। পরেরদিন স্কুলছাত্রীর বাবা বাড়িতে ফিরলে বিষয়টি শিক্ষকদের জানানোর জন্য মেয়েকে নিয়ে স্কুলে রওনা হন তিনি। পথে ধর্ষণকারী সুমন তালুকদার তাদের পথরোধ করে বিষয়টি কাউকে জানালে ধর্ষণের ভিডিওচিত্র ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দেয়। বিষয়টি এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে শিক্ষার্থীরা ক্ষোভে ফেটে পড়ে। বৃহস্পতিবার বিকেলে শত শত শিক্ষার্থী, শিক্ষক, ম্যানেজিং কমিটির সদস্য বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার  কার্যালয়ে উপস্থিত হয়ে ধর্ষণকারী সুমনকে গ্রেপ্তার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করেন। পরবর্তীতে নির্বাহী কর্মকর্তা ঝুমুর বালার নির্দেশে পুলিশ ওইদিন রাতেই অভিযান চালিয়ে ধর্ষণকারী সুমন তালুকদারকে গ্রেপ্তার করে।

উজিরপুর মডেল থানার ওসি মো. নুরুল ইসলাম পিপিএম জানান, এ ঘটনায় স্কুলছাত্রী বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করে। এ ছাড়া আজ শুক্রবার সকালে চাগুরিয়া গ্রামের অপর এক গৃহবধূ বাদী হয়ে সুমনের বিরুদ্ধে আরো একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছেন। উভয় মামলায় আজ শুক্রবার দুপুরে গ্রেপ্তারকৃত সুমনকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়।

 


মন্তব্য