kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৯ জানুয়ারি ২০১৭ । ৬ মাঘ ১৪২৩। ২০ রবিউস সানি ১৪৩৮।


নির্বাচিত হয়েই সাংবাদিককে হুমকি

'মুই কোন বাড়ির পোলা হেয়া তুই জানো?'

পাথরঘাটা(বরগুনা)   

২৪ মার্চ, ২০১৬ ১৯:৫৪



'মুই কোন বাড়ির পোলা হেয়া তুই জানো?'

আওয়ামী লীগ নেতা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েই দেখে নেয়ার হুমকি দিলেন এক সাংবাদিককে। মঙ্গলবার (২২ মার্চ) নির্বাচনী নিয়ন্ত্রণ কক্ষে এ ঘটনা ঘটে। নিরাপত্তা চেয়ে থানায় সাধারণ ডায়েরি করেছেন সাংবাদিক ফেরদৌস খান ইমন। পাথরঘাটা প্রেস ক্লাব বিচার দাবি করে এর নিন্দা জানিয়েছেন।

আরটিভি ও দৈনিক মানবজমিনের স্থানীয় প্রতিনিধি ফেরদৌস খান ইমন জানান, তিনি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের ফলাফল সংগ্রহের উদ্দেশ্যে গত ২২ মার্চ রাত সাড়ে ৯ টায় পাথরঘাটা উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে নিয়ন্ত্রন কক্ষে উপস্থিত হন। সেখানে উপস্থিত উপজেলার কাকচিড়া ইউনিয়ন পরিষদের পুনরায় নির্বাচিত চেয়ারম্যান মো. আলাউদ্দিন পল্টু সাংবাদিক ইমনকে দেখে নেবে বলে তেড়ে আসে। অশ্লীল ভাষায় গালাগালি করেন। তিনি সাংবাদিককে হুমকি দিয়ে বলেন, তোরে মুই খুজি , মুই কোন বাড়ির পোলা হেয়া তুই জান, মুই চোরের পোলা না? ।

ওই ঘটনার সময় নির্বাচন কাজে জড়িত রিটানিং কর্মকর্তা, বিভিন্ন নির্বাচনী ফলাফল প্রত্যাশী প্রার্থী ও তাঁদের প্রতিনিধিগণ উপস্থিত ছিলেন।

সাংবাদিক ফেরদৌস খান ইমন গত ২৩ মার্চ পাথরঘাটা থানায় জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে একটি সাধারণ ডায়েরি করেন। তিনি বিষয়টি স্থানীয় সংসদ সদস্য শওকত হাসানুর রহমান রিমনসহ দলীয় ব্যাক্তিদের অবহিত করেন।

পাথরঘাটা প্রেসক্লাব গত বুধবার (২৩ মার্চ) রাতে সভাপতি মির্জা শহিদুল ইসলাম খালেদ এর সভাপতিত্বে এক জরুরি সভায় মিলিত হয়। সভায় জরুরি ভিত্তিতে ওই ঘটনার সুষ্ঠ তদন্ত করে উপযুক্ত বিচার দাবি করেন।

সাংবাদিক ইমন খান আরো বলেন,  আলাউদ্দিন পল্টুর বিরুদ্ধে কাকচিড়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যান থাকা অবস্থায় দরিদ্র নারীদের ভিজিডি‘র চাল আত্মসাৎ সংক্রান্ত একটি সংবাদ আরটিভিতে গত ১০ ফেব্রুয়ারি প্রচারিত হলে তিনি আমার প্রতি ক্ষিপ্ত হন ও লোক মারফত হুমকী দিয়ে আসছেন।

পাথরঘাটা থানার অফিসার ইন চার্জ(ওসি) এসএম জিয়াউল হক বৃহস্পতিবার বিকালে জানান, সাধারণ ডায়েরির বিষয়ে আদালতের অনুমনি নিয়ে তদন্তপূর্বক আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এ ব্যাপারে কাকচিড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও নবনির্বাচিত চেযারম্যানকে মো. আলাউদ্দিন পল্টু বলেন তিনি কাউকে হুমকি দেন নি।


মন্তব্য