kalerkantho


চট্টগ্রামে ছাত্রলীগ নেতাকে মারধর, ওসিসহ ৪ পুলিশের বিরুদ্ধে মামলা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৩ মার্চ, ২০১৬ ১৭:২৮



চট্টগ্রামে ছাত্রলীগ নেতাকে মারধর, ওসিসহ ৪ পুলিশের বিরুদ্ধে মামলা

চট্টগ্রামে হোটেল কক্ষ থেকে ছাত্রলীগ নেতাকে আটকের পর মারধরের অভিযোগে সিএমপির সদরঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মঈনুল ইসলাম ভূঁইয়াসহ ৪ পুলিশের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। আজ বুধবার দুপুরে মহানগর হাকিম ফরিদ আলমের আদালতে মামলাটি করেন মারধরের শিকার সাবেক কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের উপ-পরিবেশবিষয়ক সম্পাদক ও চট্টগ্রাম সিটি কলেজ ছাত্রলীগের বক্তৃতা ও বিতর্ক সম্পাদক আব্দুর রহিম জিল্লু। আদালত বাদীর জবানবন্দি গ্রহণ করে আদেশের জন্য অপেক্ষামাণ রেখেছেন অভিযোগটি।

বাদীর পক্ষের আইনজীবী আকবর আলী বলেন, ওসি মঈনুল ও এসআই সালেক ছাড়াও অজ্ঞাতনামা দুই পুলিশ সদস্যকে আসামি করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে নির্যাতন ও হেফাজতে মৃত্যু নিবারণ আইন, ২০১৩ এর ১৫ ধারায় অভিযোগ আনা হয়েছে।

গত ১৯ মার্চ শনিবার বিকেলে সদরঘাট থানার একটি আবাসিক হোটেল থেকে নারীসহ ছাত্রলীগ নেতা জিল্লুকে আটক করে পুলিশ। এ সময় পুলিশের সাথে বিতর্কে জড়িয়ে পড়ায় পুলিশ জিল্লুরকে মারধর করে নাক ফাটিয়ে দেয়। জিল্লু দাবি করেন, নিজের বিবাহিত স্ত্রীকে নিয়ে হোটেল কক্ষে অবস্থানকালে ওসি মাইনুল কোনো কারণ ছাড়াই তাকে মারধর করে থানায় নিয়ে যায়। এ সময় ওসিকে ভাই সম্মোধন করে ছাত্রলীগ নেতা পরিচয় দিলে তিনি ক্ষেপে গিয়ে মারধর করেন।

পরে শতাধিক ছাত্রলীগ নেতাকর্মী সেদিন সদরঘাট থানা ঘেরাও করে পুলিশের র‌্যাকার এবং ক্যান্টিন ভাঙচুর করে জিল্লুরকে ছেড়ে দিতে বাধ্য করে। এর পর থেকে নগর ছাত্রলীগ ওসি মাঈনুলের অপসারণের দাবিতে নগরীতে সভা সমাবেশও করা হয়।

 


মন্তব্য