kalerkantho


পটুয়াখালীতে সংঘর্ষে আহত ১০, বিএনপির নির্বাচন বর্জন

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২২ মার্চ, ২০১৬ ১৩:৪২



পটুয়াখালীতে সংঘর্ষে আহত ১০, বিএনপির নির্বাচন বর্জন

ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনকে কেন্দ্র করে পটুয়াখালীতে পৃথক সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধসহ ১০ জন আহত হয়েছেন। এ জন্য স্থগিত করা হয়েছে দুটি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ।

এ ছাড়া ভোট কারচুপি ও অনিয়মের অভিযোগে বিএনপির দুই ও স্বতন্ত্র পাঁচ চেয়ারম্যান প্রার্থী নির্বাচন বর্জন করেছেন। আজ মঙ্গলবার সকাল ৮টায় ভোটগ্রহণ শুরুর পর এসব ঘটনা ঘটে।

পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলা রিটার্নিং অফিসার আবু বকর সিদ্দিক জানান, কলাপাড়ার চাকামইয়া ইউনিয়নের চুঙ্গাপাশা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে জালভোট দেওয়াকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগ ও বিএনপিকর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এতে দুজন গুলিবিদ্ধসহ পাঁচজন আহত হন। একপর্যায়ে পাঁচ রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছুড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে পুলিশ। এই অবস্থায় সাময়িকভাবে এই কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

এদিকে, সদর উপজেলার মরিচবুনিয়া ইউনিয়নের বাজার ঘোনা সরকারি প্রাথমিক ভোটকেন্দ্রে দুই প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে প্রিসাইডিং অফিসার মৃণাল কান্তী দেসহ পাঁচজন আহত হয়েছেন। এ ছাড়া এসময় কেন্দ্র ভাঙচুর ও ব্যালট পেপার ছিনতাই হওয়ায় এই কেন্দ্রেও স্থগিত ভোট স্থগিত করা হয়েছে। অপরদিকে, অনিয়মের অভিযোগ এনে পটুয়াখালী সদর উপজেলার বিএনপি মনোনীত এক ও স্বতন্ত্র দুই চেয়ারম্যান প্রার্থী নির্বাচন বর্জন করেছেন।

একই অভিযোগে বাউফলের বিএনপির এক ও স্বতন্ত্র তিন প্রার্থী ভোট বর্জন করেছেন।

 


মন্তব্য