kalerkantho

25th march banner

তিন হাজার নতুন ভূমি অফিস হচ্ছে

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২২ মার্চ, ২০১৬ ১০:১১



তিন হাজার নতুন ভূমি অফিস হচ্ছে

সমগ্র দেশের সিটি করপোরেশন, পৌরসভা ও ইউনিয়নে নতুন করে ৩১০০টি ভূমি কার্যালয় নির্মাণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। ভূমিসংক্রান্ত রেকর্ড সংরক্ষণ ও রক্ষণাবেক্ষণের সুবিধা বাড়ানো, আধুনিক এবং দক্ষ ভূমি প্রশাসনের মাধ্যমে জনসেবার মানোন্নয়ন করতে এ উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। ভূমি মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. আকরাম হোসেন বলেন, আমাদের সমগ্র দেশে ভূমি অফিসের অবস্থা জরাজীর্ণ। কিছু জায়গায় ভূমি অফিস থাকলেও সেগুলো সেভাবে কার্যকর নেই। অনেক ইউনিয়নে ভাড়া বাসায় কোনো রকমে ভূমি কার্যক্রম চালানো হচ্ছে। এসব কথা চিন্তা করেই সারা দেশে ৩১০০টি ভূমি অফিস নির্মাণ করা হবে।

তিনি বলেন, এসব ভূমি অফিসের বেহালদশার কারণে খাজনা বা রাজস্ব আদায় সংশ্লিষ্ট মূল্যবান রেকর্ড যথাযথভাবে সংরক্ষণ করা হচ্ছে না। পাশাপাশি জনসাধারণকেও সঠিক সেবা দেওয়া অসম্ভব হয়ে পড়েছে। উপকূলে ভূমি অফিসের অবস্থা আরও খারাপ। সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, সমগ্র দেশ শহর ও ইউনিয়ন ভূমি অফিস নির্মাণ শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় এ উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। প্রায় ২ হাজার ২১৩ কোটি ৯৪ লাখ টাকা ব্যয়ে এসব কার্যালয় নির্মাণ করবে ভূমি মন্ত্রণালয় ও স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর।

২০১৬ থেকে ২০১৯ সালের মধ্যে প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করা হবে। প্রকল্পের আওতায় ১০ একর ভূমি অধিগ্রহণ, শহর ও ইউনিয়নে মোট ২৬৫০টি ভূমি কার্যালয় নির্মিত হবে। দুই তলা ভিত্তির এসব ভূমি কার্যালয়ের আয়োতন হবে ১ হাজার ৩৫ বর্গমিটার। উপকূল ও হাওরে ১ হাজার ৩৫ বর্গমিটারের ৪৫০টি ভূমি কার্যালয় হবে। থাকবে উন্নত মানের সীমানা প্রাচীরও।
 
ভূমি মন্ত্রণালয় বলছে, বাংলাদেশের কৃষি অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালনকারী ভূমির পরিমাণ সীমিত। এই সীমিত সম্পদ রক্ষণাবেক্ষণসহ খাজনা আদায়, খাস জমি ব্যবহার-পরিচালনা, ভূমি নীতিমালা বাস্তবায়ন করতে প্রকল্পটি হাতে নেওয়া হচ্ছে। এ প্রকল্প বাস্তবায়ন হলে সমগ্র দেশের ভূমি ব্যবস্থাপনা একটা উল্লেখযোগ্য কাঠামোতে চলে আসবে বলেও মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

 


মন্তব্য