kalerkantho


ঝুঁকিপূর্ণ স্বাস্থ্যসেবা প্রদান

লক্ষ্মীপুরে স্বাস্থ্যসচিবসহ ৯ কর্মকর্তাকে লিগ্যাল নোটিশ

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি   

২০ মার্চ, ২০১৬ ১৩:০০



লক্ষ্মীপুরে স্বাস্থ্যসচিবসহ ৯ কর্মকর্তাকে লিগ্যাল নোটিশ

লক্ষ্মীপুরসহ সারা দেশে প্রায় ২১ হাজার স্বাস্থ্য সহকারীর বিরুদ্ধে তৃণমূল পর্যায়ে ঝুঁকিপূর্ণ স্বাস্থ্যসেবা প্রদানের অভিযোগ এনে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সচিবসহ স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ৯ কর্মকর্তাকে লিগ্যাল নোটিশ পাঠানো হয়েছে। স্বাস্থ্য সহকারীরা কোনো ধরনের প্রাতিষ্ঠানিক প্রশিক্ষণ না নিয়ে শিশু ও নারীসহ জনগণকে ঝুঁকিপূর্ণ স্বাস্থ্যসেবা প্রদান করায় রেজিস্ট্রার্ড ডাকযোগে এ নোটিশ পাঠানো হয়।

রবিবার (২০ মার্চ) সকাল ১১টার দিকে লক্ষ্মীপুর জজকোর্টের আইনজীবী মুহাম্মদ মাহমুদুল হক সুজনের জনস্বার্থে করা নোটিশে ৩০ দিনের মধ্যে স্বাস্থ্য সহকারীদের প্রাতিষ্ঠানিক প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করার দাবি জানান। তা না হলে সনদবিহীন স্বাস্থ্য সহকারীদের ঝুঁকিপূর্ণ স্বাস্থ্যসেবা বন্ধে সংশ্লিষ্ট আদালতের দ্বারস্থ হওয়ার কথাও জানান তিনি। নোটিশটি স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক, চট্রগ্রাম বিভাগের পরিচালক (স্বাস্থ্য), লক্ষ্মীপুর জেলা সিভিল সার্জন, জেলার পাঁচটি উপজেলার স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তাকে পাঠানো হয়।

আইনজীবী মুহাম্মদ মাহমুদুল হক সুজন জানান, গত ১১ ও ১২ মার্চ তিনি বিভিন্ন জাতীয় ও স্থানীয় পত্রিকা এবং টেলিভিশনের খবরের মাধ্যমে জানতে পারেন লক্ষ্মীপুরসহ সারা দেশে প্রায় ২১ হাজার স্বাস্থ্য সহকারী কাজ করছেন। তাঁরা নবজাতক, শিশু, কিশোরী ও গর্ভবতী মহিলাদের টিকাদানসহ সাধারণ মানুষকে তৃণমূল পর্যায়ে চিকিৎসাসেবা দিয়ে আসছে। কিন্তু স্বাস্থ্য সহকারীদের কোনো প্রাতিষ্ঠানিক প্রশিক্ষণ নেই। অথচ প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের অধীনে যেসব ভেটেইনারি ফিল্ড অ্যাসিস্ট্যান্টরা হাঁস-মুরগি ও গরু-ছাগলসহ গবাদিপশুর চিকিৎসা করে, তাঁরা প্রাতিষ্ঠানিক প্রশিক্ষণ নিয়ে ডিপ্লোমা সনদধারী হয়। এ ক্ষেত্রে স্বাস্থ্য সহকারীরা ডিপ্লোমা সনদধারী না হয়েও টিকা ও চিকিৎসাসেবা প্রদান করেন, যা মানুষের স্বাস্থ্যের জন্য মারাত্মক ঝুঁকিপূর্ণ।

এ নোটিশ প্রাপ্তির ৩০ দিনের মধ্যে স্বাস্থ্য সহকারীদের সংশ্লিষ্ট বিষয়ে প্রাতিষ্ঠানিক প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করার দাবি জানানো হয়।

তা না হলে সনদবিহীন স্বাস্থ্য সহকারীদের ঝুঁকিপূর্ণ স্বাস্থ্যসেবা বন্ধে সংশ্লিষ্ট আদালতের দ্বারস্থ হওয়ার হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়।


মন্তব্য