kalerkantho


নরসিংদীতে সংঘর্ষের সময় ইউপি চেয়ারম্যানের গুলি, শিক্ষার্থীসহ আহত ১১

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৯ মার্চ, ২০১৬ ২৩:৫৩



নরসিংদীতে সংঘর্ষের সময় ইউপি চেয়ারম্যানের গুলি, শিক্ষার্থীসহ আহত ১১

নরসিংদীর রায়পুরা উপজেলায় ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান-শিক্ষক দ্বন্দ্বে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় স্কুল মাঠে দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে দুই পক্ষ মুখোমুখি সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়লে ইউপি চেয়ারম্যান শটগান দিয়ে গুলি ছুড়লে আতঙ্কে শিক্ষার্থীসহ ১১ জন আহত হয়। আজ শনিবার বিকেলে রায়পুরা উপজেলার আবদুল্লাহপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, রায়পুরার আবদুল্লাহপুর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান হাজি আবদুল মোমেনের সঙ্গে আবদুল্লাহপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মো. কামাল উদ্দিনের বেশ কিছুদিন ধরে দ্বন্দ্ব চলে আসছিল। এরই পরিপ্রেক্ষিতে আজ বিকেলে স্কুল মাঠে দুই পক্ষের মধ্যে প্রকাশ্যে সংঘর্ষের সৃষ্টি হয়। দুই পক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টাধাওয়ার ঘটনাও ঘটে। এ সময় ইউপি চেয়ারম্যান হাজি মোমেন বিদ্যালয় ক্যাম্পাসে লাইসেন্সধারী শটগান দিয়ে গুলি ছুড়লে আতঙ্কের সৃষ্টি হয়। গুলির শব্দে আতঙ্কিত হয়ে শ্রেণিকক্ষ থেকে তাড়াহুড়া করে নামতে গিয়ে আট-নয়জন শিক্ষার্থী আহত হয়। উভয় পক্ষের এ সংঘর্ষে ইউপি সদস্য নাজিম উদ্দিন ও সুন্দর আলী গুরুতর আহত হন। খবর পেয়ে রায়পুরা থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

গুলি ও সংঘর্ষের বিষয়ে রায়পুরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আজহারুল ইসলাম বলেন, সংঘর্ষের খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসি। ইউপি চেয়ারম্যানের সঙ্গে থাকা লাইসেন্সধারী শটগান থেকে ফাঁকা গুলি ছোড়ার বিষয়ে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


মন্তব্য