kalerkantho

শুক্রবার । ২০ জানুয়ারি ২০১৭ । ৭ মাঘ ১৪২৩। ২১ রবিউস সানি ১৪৩৮।


চক্রান্ত ব্যর্থ করে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ : সংস্কৃতিমন্ত্রী

নীলফামারী প্রতিনিধি    

১৮ মার্চ, ২০১৬ ২১:২৮



চক্রান্ত ব্যর্থ করে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ : সংস্কৃতিমন্ত্রী

"স্বাধীনতাবিরোধী শক্তি জামায়াত ও বিএনপি ধর্মের নামে, রাজনীতির নামে সন্ত্রাসের জম্ম দিচ্ছে, মানুষ হত্যা করছে। বাংলাদেশকে একটি অরাজক রাষ্ট্রে পরিণত করার চেষ্টা করছে। কিন্তু বাংলার মানুষ আজ শেখ হাসিনার নেতুত্বে আস্থাশীল। যেকোনো মূল্যে মানুষ সকল অশুভ তৎপরতা রুখতে বদ্ধ পরিকর। সকল অশুভ চক্রান্ত ব্যর্থ করে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ, এগিয়ে যাবে বাংলাদেশ। "

আজ শুক্রবার সন্ধ্যায় নীলফামারীর ডোমার বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে ৭১ এর মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের স্মরণে মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিস্তম্ভ 'হৃদয়ে স্বাধীনতা' এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর।

মন্ত্রী বলেন, "৪৪ বছর পর ডোমারে স্বাধীনতা স্তম্ভ উদ্বোধন করা হলো। বিলম্বে হলেও এটি সম্ভব হয়েছে। এজন্য আমি আনন্দিত। মুক্তিযুদ্ধ আমাদের অহংকার, আমাদের গর্ব। জাতীর পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান গোটা বাঙালি জাতিকে দলমত নির্বিশেষে স্বাধীনতার চূড়ান্ত  লক্ষ্যে নিয়ে যান। আর বাঙালি জাতি সেই মহান নেতার আত্মত্যাগ, ৩০ লক্ষ শহীদের আত্মদানে মহিমান্বিত বাংলাদেশের উন্নয়নের সুফল ভোগ করতে শুরু করেছে। বঙ্গবন্ধুর যোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ উন্নয়নের মহাসড়কে। " তিনি বলেন,  "একদা মঙ্গাপিড়ীত নীলফামারী জেলা আজ সম্পূর্ণ মঙ্গামুক্ত। শেখ হাসিনার কল্যাণে আজ এ অঞ্চল শিল্পায়নের মুখ দেখেছে। উত্তরা ইপিজেড এ অঞ্চলের মানুষের জীবনযাত্রার মান পাল্টে দিচ্ছে। কৃষি উৎপাদনে এ অঞ্চল শষ্য ভাণ্ডারে পরিণত হয়েছে। "

ডোমার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাবিহা সুলতানার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন সংসদ সদস্য আফতাব উদ্দীন সরকার, নীলফামারী জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি দেওয়ান কামাল আহমেদ. সাধারণ সম্পাদক মমতাজুল হক, সহসভাপতি আমিনূল হোসেন সরকার, সাংগঠনিক সম্পাদক হাফিজুর রশিদ, জেলা কৃষকলীগের সভাপতি অক্ষয় কুমার রায়, নীলফামারী সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবুজার রহমান, বিটিভির সাবেক শিল্প নির্দেশক জি এম এ রাজ্জাক, নীলফামারী পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি মসফিকুর রহমান প্রমুখ।

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর জেলার ২৫ জন বীরঙ্গনাকে সম্মাননা প্রদান করেন। ডোমার উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার মোহাম্মদ নুরন নবী জানান, স্থানীয়ভাবে সংগৃহীত ২০ লাখ টাকা ব্যয়ে শহীদদের স্মরণে স্মৃতিস্তম্ভটি নির্মাণ করা হয়েছে। এর নকশা  ও পরিকল্পনা করেছেন বাংলাদেশ টেলিভিশনের সাবেক শিল্প নির্দেশক ছয় নম্বর সেক্টরের মুক্তিযোদ্ধা জি এম এ রাজ্জাক।

 


মন্তব্য