kalerkantho


আ.লীগের প্রার্থী পরির্বতনের দাবিতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ

'রাজাকারের সন্তানের হাতে নৌকা দেওয়া যাবে না'

কুমিল্লা দক্ষিণ   

১৭ মার্চ, ২০১৬ ২১:৫৬



'রাজাকারের সন্তানের হাতে নৌকা দেওয়া যাবে না'

কুমিল্লার লাকসাম উপজেলার উত্তরদা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থী পরির্বতনের দাবিতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী ও এলাকার জনগণ বৃহস্পতিবার বিকেলে কুমিল্লা-নোয়াখালী আঞ্চলিক মহাসড়কে উপজেলার উত্তরদা ইউনিয়নের পোলইয়া এলাকায় এ কর্মসূচী পালন করে।

এ সময় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা শ্লোগান দিতে থাকে ‘কোনও রাজাকারের সন্তান নৌকা প্রতীকের প্রার্থী হতে পারে না’।  

জানা গেছে, ৬ মার্চ রাতে ওই ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ থেকে রাজাকারপুত্র ও সদ্য বিএনপি থেকে আওয়ামী লীগে আসা হারুনুর রশিদকে দলীয় মনোনয়ন দেওয়া হয়। হারুন উপজেলার উত্তরদা ইউনিয়নের বাটিয়াভিটা গ্রামের রাজাকার আবদুল মজিদের (বর্তমানে মৃত) ছেলে। তিনি ইউনিয়ন বিএনপির ৭নং ওয়ার্ড সভাপতি। তবে প্রায় ৬ মাস আগে তিনি আওয়ামী লীগে যোগদান করলেও এখনও তিনি বিএনপি থেকে পদত্যাগ করেননি। এ ঘটনার পর থেকেই স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের মাঝে ক্ষোভের আগুন জ্বলছে।

আজকের মানববন্ধনে ও বিক্ষোভ মিছিলে বক্তব্য রাখেন, স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা তাজুল ইসলাম, জামাল মুজমদার, মাস্টার ফজলুল হক, আনোয়ার আলম বাচ্চু, দিদার হোসেন, যুবলীগ নেতা মহিন উদ্দিন হেলাল, মোজাম্মেল হোসেন, জাহাঙ্গীর আলম, কবির হোসেন, মো. হানিফ, ছাত্রলীগ নেতা শিমুল মজুমদার, মোশাররফ হোসেন, শাহেদ মজুমদার প্রমুখ।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, এ ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান ও প্রবীণ আওয়ামী লীগ নেতা গোলাম রাব্বানী মজুমদার বিপুল ভোটে দুইবার চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। ইউনিয়নজুড়ে তার ব্যাপক জনসমর্থন রয়েছে।

তবে অজানা কারণে তাকে মনোনয়ন না দিয়ে বিএনপি ছেড়ে আওয়ামী লীগে সদ্য যোগদানকারী হারুনুর রশিদকে মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে। অথচ হারুনের পিতা ছিল রাজাকার। তারা আরো বলেন, কোনও রাজাকারের সন্তান ও জনবিচ্ছিন্ন ব্যক্তি আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পাওয়ার অধিকার রাখে না। তাই উক্ত মনোনয়ন পুনঃবিবেচনার জন্য আওয়ামী নেতৃবৃন্দের প্রতি আহবান জানান বক্তারা।


মন্তব্য