kalerkantho


কেরানীগঞ্জে নির্বাচনী প্রচারণাকালে পাল্টাপাল্টি হামলা, যুবলীগ নেতাসহ আহত ৬

কেরানীগঞ্জ (ঢাকা) প্রতিনিধি   

১৬ মার্চ, ২০১৬ ২০:১৫



কেরানীগঞ্জে নির্বাচনী প্রচারণাকালে পাল্টাপাল্টি হামলা, যুবলীগ নেতাসহ আহত ৬

কেরানীগঞ্জের খেজুরবাগে নির্বাচনী প্রচারণার সময় শুভাঢ্যা ইউনিয়নে বিএনপি মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী হায়াৎ আলী ভান্ডারী ও তার সমর্থকদের ওপর হামলা চালিয়েছে আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী ইকবাল হোসেনের সমর্থকরা। ইকবাল হোসেনের ছোট ভাই সোহেল ও ইউনিয়ন যুবলীগের আহ্বায়ক ইমারত হোসেনের নেতৃত্বে আজ বুধবার দুপুরে এ হামলার ঘটনা ঘটে।

এ সময় তারা ৩ রাউন্ড গুলি ছুড়ে এবং ২টি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটায়। পরে হায়াৎ আলীর সমর্থকদের পাল্টা হামলায় গণপিটুনির শিকার হন যুবলীগের আহ্বায়ক ইমারত হোসেন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে আসে। হামলা-পাল্টা হামলায় বিএনপির প্রার্থীসহ উভয় পক্ষের অন্তত ৬ জন আহত হয়েছেন।

এলাকাবাসী জানায়, খেজুরবাগ মোড়ে নির্বাচনী প্রচারনার সময় সোহেল ও ইমারতের নেতৃত্বে ১৫/১৬ জন যুবক বিএনপি প্রার্থী হায়াৎ আলী ভান্ডারী ও তার সমর্থকদের ওপর হামলা চালায়। এ সময় তাদের এলোপাতাড়ি কিল-ঘুষিতে আহত হন হায়াৎ আলী ভান্ডারী, তার ছেলে আসাদুজ্জামান সুমন, সমর্থক মন্টু ও মোকশেদ। এক পর্যায়ে হামলাকারীরা ৩ রাউন্ড গুলি ছুড়ে এবং ২টি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে আতঙ্ক সৃষ্টি করে। খবর পেয়ে হায়াৎ আলী ভান্ডারীর লোকজন জড়ো হয়ে পাল্টা হামলা চালায়। এ সময় অন্যরা পালিয়ে গেলেও যুবলীগ নেতা ইমারত হোসেনকে ধরে গনপিটুনি দেয়।

এ ব্যাপারে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) মনিরুল ইসলাম বলেন, শুনেছি দুই প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এ ঘটনায় ইমারত হোসেন একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।


মন্তব্য